দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের কান্তা ইক্ষু খামারের কান্তনগর মোড়ে সেতাবগঞ্জ কান্তা সুপার মার্কেট নির্মাণের ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

কান্তনগর মোড় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের সভাপতি মোঃ মাকসুল মিনহার অভিযোগ পত্রে জানা যায়, ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের ৯০টি দোকানঘর নির্মাণের জন্য ১ কোটি টাকা ছাড় করেছে মিল কর্তৃপক্ষ ৩৮টি ঘর নির্মাণের জন্য। কিন্তু মিল কর্তৃপক্ষ প্রতিটি দোকান ঘরে ২ দিকে ১৬/১০/১৪ ফুট দেওয়াল যা ছাপড়া টিনের ঘর যে ঘরগুলোর কোন বারান্দা নাই এই ভাবে নির্মাণ করেছে।

প্রতিটি দোকান ঘর নির্মাণের ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকা। কিন্তু বাস্তবে প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৪০/৪৫ হাজার টাকা। গত ২২ অক্টোবর-২০১৫ কান্তা সুপার মার্কেট নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু অজ্ঞাতা কারণে আজ পর্যন্ত ৩৮টি দোকান ঘর মিল কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবসায়ীকে বরাদ্দ দিতে পারেনি।

এ ব্যাপারে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের প্রকৌশলী মোঃ কামরুল হাসান জানান, দরপত্র আহবান করে ৭০ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে দোকান ঘর গুলো নির্মাণের জন্য। সরকারী নিয়ম অনুযায়ী আমরা ঠিকাদারের মাধ্যমে দোকান ঘর গুলো নির্মাণ করেছি। এখানে অনিয়ম হয়নি।

কান্তনগর মোড় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা জানান, মিল কর্তৃপক্ষ প্রতিটি দোকান ঘরের জন্য ব্যবসায়ীদের নিকট হতে ২ লক্ষ টাকা জামানত বাবদ যাওয়া হয়েছে। কিন্তু কোন ব্যবসায়ী ২ লক্ষ টাকা জামানত দিয়ে দোকান ঘর বরাদ্দ নিতে অনিচ্ছুক প্রকাশ করেছেন। এ ব্যাপারে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের প্রকৌশলী আরও বলেন, দোকান ঘরগুলো নির্মাণ করতে অতিরিক্ত খরচ লেগেছে তার কারণ হিসেবে জানান অনেক গভীর থেকে দোকান ঘরগুলো ভিত্তি প্রস্থর করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য