ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে কোনো প্রকার চিকিৎসার সনদপত্র ছাড়া চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনার সময় বৃহস্পতিবার(৩ আগষ্ট) রানীগঞ্জ বাজারের মেহেদুল ভবনের নিচ তলা পলিপ পাইল্ স সেন্টার থেকে আন্জুমান মফিদু নামে ভূয়া মহিলা চিকিৎসক কে আটক করা হয়।ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউ এন ও)টি এম এ মমিন ওই ভূয়া মহিলা চিকিৎসকে ভ্রম্যমাণ আদালতে এক মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন।

এ সময় উপস্হিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্হ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নুর নেওয়াজ, উপজেলা প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা,ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউ এন ও) টি এম এ মমিন জানান,দীর্ঘ দিন আন্জুমান চিকিৎসার সনদ ছাড়াই পাইল্ স ও পলিপ রোগের চিকিৎসা করে আসছিলেন।

উপজেলার রানীগঞ্জ দক্ষিণ দেবীপুর গ্রামের আবু ব্ক্কর ছিদ্দিকের স্ত্রী ও বগুড়া জেলা শেখের কোলা ইউনিয়নের মহিষবাখান গ্রামের আমজাদ হোসেনের মেয়ে।

আন্জুমানের স্বামী ডাঃ এ বি ছিদ্দিক নামে এলাকায় পরিচিত। তিনি রানীগঞ্জ বাজারের বিন্যাগাড়ি রাস্তায় ন্যাশনাল প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পাশে বিশাল সাইনবোর্ড দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় মাইকে প্রচার করে দীর্ঘদিন থেকে পাইল্ স ও পলিপ রোগের চিকিৎসা করে আসছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য