আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার অপহৃত বড়খাতা বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী শাহানাজ পারভীনকে উদ্ধার করে বাউরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান । বৃহস্পতিবার দুপুরে অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে বাউরা থেকে উদ্ধার করে বড়খাতা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কাছে পাঠান।

এসময় হাতীবান্ধা থানা পুলিশ এস আই আ:রাজ্জাক মেয়েটিকে থানায় নিয়ে এসে প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করার পর বিকেল ৪ টায় মেয়ের মা সহ লালমনিরহাট ম্যাজিষ্ট্রেট কোর্টে নিরাপদ হেফাজতে প্রেরণ করে।শিশু শাহানাজ পারভীনকে উদ্ধারের সংবাদ পেয়ে বড়খাতা ইউনিয়ন শিশু ও যুব ফোরাম উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব সৈয়দ এনামুল কবির ও থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিমকে ধন্যবাদ জানায় এবং অপহরণকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির জোর দাবী জানায়।

অপহরণকারী আমিনুর রহমান পালাতক রয়েছেন।উল্লেখ্য: গত ২৫ জুলাই ২০১৭, বেলা সাড়ে ১২টায় বড়খাতা ইউনিয়ন শিশু ও যুব ফোরামের নেতৃবৃন্দ গত ৫ জুলাই ২০১৭ তারিখে অপহৃত বড়খাতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী শাহানাজ পারভিন (১৪) কে উদ্ধার ও অপহরণকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের জন্য লালমনিরহাটের হাতীবান্ধার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব সৈয়দ এনামুল কবির এর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ এনামুল কবির স্মারকলিপি গ্রহণ পূর্বক উপস্থিত সকলকে আশ্বস্থ করে বলেন যে, তিনি শিশু শাহানাজকে উদ্ধারের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন এবং তিনি তাৎক্ষনিক বিভিন্ন দপ্তরে অপহৃত শিশু শাহানাজকে উদ্ধারের জন্য মুঠোফোনে কথা বলেন। তিনি স্মারকলিপি প্রদানকারী বড়খাতা ইউনিয়ন শিশু ও যুব ফোরাম এর নেতৃবৃন্দদের সাধুবাদ জানান এবং অপহৃত শিশু শাহানাজ পারভিন এর মা মোছাঃ ছালেমা বেগমের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য