মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও থেকেঃ ঠাকুরগাঁও সরকারি মহিলা কলেজ হোস্টেলের দ্বিতীয়তলার ছাদের কার্নিসে ধস হয়েছে। এ ঘটনায় দ্বিতীয়তলা থেকে নামতে গিয়ে প্রায় ২০জন ছাত্রী ভয়ে অজ্ঞান হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

বুধবার রাত সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষার্থীরা হলেন, রুবী (১৮), লাজু (১৮), জেসমিন (১৮), খুকু মনি (১৮), মুনমুন (১৮), সোহাগি (১৮), মৌসুমি (১৮), সুমাইয়া (১৮), হোসনেয়ারা (১৮) প্রমূখ।

শিক্ষার্থীদের হোস্টেল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

হোস্টেল থাকা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃষ্টি হচ্ছিলো। হঠাৎ ২য় তলার ছাদের একটি কোনা ধসে পড়া শব্দ পায় কয়েকজন শিক্ষার্থী। সেই খবর অন্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে হোস্টেলের ওপর থেকে শিক্ষার্থীরা দ্রুত নামার চেষ্টা করে। এ সময় আতংগ্রস্ত হয়ে ২০জন শিক্ষার্থী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

তাৎক্ষনিকভাবে জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল হাসপাতালে শিক্ষার্থীদের দেখতে যান। চিকিৎসার গাফলতি না হওয়ার জন্য তিনি চিকিৎসকদের নির্দেশ দেন।

হোস্টেল সুপার প্রভাষক আব্দুস সালাম জানান, হঠাৎ হোস্টেলের বাইরের কার্নিস ধসে পড়লে শিক্ষার্থীরা আতংকিত হয়ে পড়ে। তখন এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তোজাম্মেল হক জানান, শিক্ষার্থীরা কেউ আহত হয়নি। আতংকে এ সময় তারা জ্ঞান হারিয়েছিল। হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ বদিউজ্জামান সরকার বলেন, বৃষ্টিতে ভিজে হোস্টেলের একটি কার্নিস ভেঙে পড়ে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য