আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর কান্দাহারে নেটো বহরে তালেবানের আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলায় ‍যুক্তরাষ্ট্রের দুই সৈন্য নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পেন্টাগন।

বুধবার এক জঙ্গী আত্মঘাতী বিস্ফোরক ভর্তি একটি গাড়ি নিয়ে কান্দাহার বিমানবন্দরের কাছে নেটো বহরে বিস্ফোরণ ঘটায় বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা, খবর বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

কান্দাহার পুলিশের মুখপাত্র জিয়া দুরারানি বলেছেন, “দুপুরের দিকে কান্দাহারের দামান এলাকায় বিদেশি বাহিনীগুলোর বহর লক্ষ্য করে একটি গাড়ি বোমা হামলা চালানো হয়।”

পেন্টাগনের মুখপাত্র নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন জেফ ড্যাভিস ওয়াশিংটন থেকে দেওয়া এক ঘোষণায় ওই দুই সৈন্যের নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু জানাননি তিনি; কোনো সৈন্য আহত হয়েছে কি না সে বিষয়েও কোনো মন্তব্য করেনি পেন্টাগন।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নেটো নেতৃত্বাধীন বাহিনীটির বেশ কয়েকজন আহত হয়ে থাকতে পারে; কিন্তু কোনো সংখ্যা উল্লেখ করেননি তিনি।

হামলাটির দায় স্বীকার করেছে তালেবান। জঙ্গিগোষ্ঠীটির মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ দাবি করেছেন, হামলায় ‘দুজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাসহ’ ১৫ জন বিদেশি সৈন্য নিহত হয়েছে।

বুধবারের হামলায় নিহত দুই সৈন্যকে নিয়ে চলতি বছর আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের নিহত সৈন্যের সংখ্যা ১০ জনে দাঁড়াল।

কান্দাহারের বিমানবন্দরে আফগানিস্তানে মোতায়েন আন্তর্জাতিক বাহিনীর একটি বড় সামরিক ঘাঁটি আছে। আফগানিস্তানের বাহিনীগুলোকে প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সহায়তা দেয়ার জন্য বর্তমানে দেশটিতে মোতায়েন আন্তর্জাতিক বাহিনীতে ৩৯টি দেশের মোট ১৩ হাজার সৈন্য আছে।

এদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য সংখ্যা আট হাজার। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দেশটিতে আরো চার হাজার সৈন্য পাঠানোর কথা বিবেচনা করছেন বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

মঙ্গলবার আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর হেরাতে শিয়া সম্প্রদায়ের একটি মসজিদে নামাজ চলাকালে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৯ জন নিহত হয়। এর একদিন পর কান্দাহারে আরেকটি আত্মঘাতী হামলা চালানো হল। ইসলামিক স্টেট (আইএস) হেরাত হামলার দায় স্বীকার করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য