আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি : তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন ও আইনমন্ত্রীকে স্মারক লিপি প্রদান করেছে লালমনিরহাটে স্থানীয় সাংবাদিকরা। রোববার (২৩ জুলাই) সকালে হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ গেটে বৃষ্টিতে ভিজে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের আয়োজনে সাংবাদিকরা এ কর্মসুচী পালন করেন।লালমনিরহাট মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের সহ সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসুচীতে বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফেরামের লাললমনিরহাট শাখার সভাপতি খোরশেদ আলম সাগর বলেন,৫৭ ধারা এই মুহূর্তে বাতিল করতে হবে।

এ ধারায় হওয়া সব মামলা এখনই প্রত্যাহার করতে হবে। আর নতুন করে যাতে কোন মামলা না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে । ৫৭ ধারার আদলে নতুন কোন আইন বা ধারাও সাংবাদিক সমাজ মানবে না।তথ্য-প্রযুক্তি আইনের বিতর্কিত ৫৭ ধারা পরিবর্তন করে ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের’ ১৯ থেকে ২২ ধারায় একই বিষয়বস্ত সন্নিবেশিত করার প্রক্রিয়া চলছে। প্রস্তাবিত সম্প্রচার আইনে কোন সংবাদে সরকার অসন্তুষ্ট হলে সাংবাদিককে ৭ বছরের জেল ও ৫ কোটি টাকা জরিমানা করতে পারবে।

প্রেসক্লাব সভাপতি ইলিয়াস বসুনিয়া পবন বলেন, নামে বা বেনামে মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিরোধী কালো আইন মাথায় ঝুলিয়ে রাখার মানে হচ্ছে ভীতি ও আতঙ্কে রাখা।মানববন্ধনে অনন্য ব্যক্তব্য রাখেন, সম্পাদক নুরল হক, মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের জেলা সভাপতি খোরশেদ আলম সাগর, সম্পাদক আসাদুজ্জামান সাজু, দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি মিজানুর রহমান দুলাল, দৈনিক ভোরের কাগজ প্রতিনিধি স্বপন কুমার দে, দৈনিক বাংলাদেশ সময় প্রতিনিধি ফারুক হোসেন নিশাত, নিউজ বাংলাদেশ প্রতিনিধি নিয়াজ আহম্মেদ শিপন, জাগো নিউজ প্রতিনিধি রবিউল হাসান,পিপলস্ নিউজের জেলা প্রতিনিধি আজিজুল ইসলাম বারী,৭১নিউজের জেলা প্রতিনিধি টিটুল ইসলাম,আলোকিত দেশের রংপুর বুরো কাহার বাকুল, বাংলাদেশ সময়ের আদিতমারী প্রতিনিধি রেজাউল ইসলাম রাজ্জাক, সরেজমিনের ক্রাইম রিপোর্টার মাঞ্জুরল ইসলাম,সরোজমিনের জেলা প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম প্রমুখ্য। পরে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে আইনমন্ত্রীকে স্মারক লিপি প্রদান করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য