দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের চিরিরবন্দরেনশরতপুর ইউনিয়নের নশরতপুর ব্লকে বৃহস্পতিবার সকালে রাজস্ব খাতের অর্থায়নে খরিব-১/১৭মৌসুমে মাটির স্বাস্থ সুরক্ষায় সবুজ সার হিসাবে ধৈঞ্চা জনপ্রিয় করনের উদ্দেশ্যে স্থাপিত প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলায় সর্বমোট ৩০টি সবুজ সারের প্রদর্শনী স্থাপন ও ৩টি মাঠ দিবসের মাধ্যমে কৃষকদের উদ্ধুদ্বকরনের এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।কৃষিবিদদের মতে, সাধারণত জমিতে ৫ শতাংশ জৈব সার থাকা প্রয়োজন। বর্তমানে আমরা অতি মাত্রায় রাসায়নিক সারের ওপর নিভরশীল।

বর্তমানে দেশের উত্তর-পূর্বঅঞ্চলের মাটিতে ১.৫০% জৈব সার আছে। তবে মাটিতে জৈব পদার্থ না থাকলে কাঙ্কিত ফলন পাওয়া যায় না। তাই জৈব সারের প্রতি কৃষকদের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। তা ছাড়া, নিরাপদ ফসল উৎপাদনের জন্য জৈব সার একটি অপরিহার্য উপকরণ।

উপজেলা কৃষি অফিসার ও কৃষিবিদ মো: মাহমুদুল হাসান জানান,জৈব সারকে মাটির প্রাণ বলা হয়। সবুজ সারও এক প্রকার জৈব সার। সুতরাং জমি পতিত না রেখে সবুজ সার হিসেবে ধৈঞ্চার আবাদ করার জন্য কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এটা একটা উত্তম পদ্ধতি। তাছাড়া মাটির স্বাস্থ সুরক্ষায় সবুজ সারের গুরুত্ব অনেক।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য