কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর এক ছাত্রী পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীর বয়স নয় বছর।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি সোমবার একই গ্রামের নানার বাড়ীতে বেড়াতে গেলে প্রতিবেশী দেওয়ানের খামার গ্রামের শহিদুল (৪২) তাঁকে কাঁঠাল পাতা পেড়ে দিতে ডেকে নিয়ে গিয়ে পাশবিক নির্যাতন চালায়। শিশুটির আত্মচিৎকারে বিষয়টি জানাজানি হয়।

নির্যাতনের ফলে অসুস্থ্য শিশুটিকে সুস্থ করতে লম্পট শহিদুলের আত্মীয় স্বজন প্রথমে হোমিও চিকিৎসা করায়। রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। শরীরিক অবস্থার অবনতি দেখে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে কুড়িগ্রাম জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

শিশুটির অভিভাবক তার সুচিকিৎসার কারনে জেলা সদরে অবস্থান করায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয় নাই। নির্যাতনের শিকার শিশুটির পরিবার ও এলাকাবাসী লম্পট শহিদুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য