দিনাজপুর নিউজ প্রতিবেদনঃ দিনাজপুরে বিদ্যুতের লোড শেডিং ও  লো ভোলটেজ এর কারনে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে।

ভুক্তভোগী গ্রাহকদের অভিযোগ বিদ্যুতের ঘন ঘন লোড শেডিং ও লো ভোলটেজ থাকায় তীব্র গরমে ঘরের ভিতর শিশু বৃদ্ধরা সবচেয়ে বেশি কষ্ট পাচ্ছে। এ ছাড়া লো ভোলটেজের কারণে ঘরের ফ্যানও ঠিকমত ঘুরে না। তীব্র গরমের কারণে শিক্ষার্থীদের পড়া শোনাও বিঘ্নিত হচ্ছে। লো ভোলটেজের ইলেট্রনিস্ক সামগ্রী দারুন ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে জেনারেটারের ব্যবহার বেড়েছে।

এদিকে বিদ্যূত না থাকায় ইলেক্টিক ব্যবসায়ী সহ কম্পিউটার ও ফটোকপিয়ারের দোকানগুলো বিপাকে পড়েছে। বিদ্যুতের অভাবে এবং লো ভোলটেজের কারনে অফিসে প্রযোজনীয় কাজকর্ম সম্পাদন করা সম্ভব হচ্ছে না। সপ্তাহ ধরে তীব্র খরা ও ভেসপা গরমে মানুষ সহ গৃহপালিত প্রাণিরা হাফিয়ে উঠেছে। অপরদিকে গত কয়েকদিন দিনাজপুরে মাত্রারিক্ত বিদ্যুতের লোড শেডিং এ সাধারণ মানুষেরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে।

জানা যায়, বড়পুকুরিয়া পাওয়ার গ্রিড সাব স্টেশনে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের দুটি সার্কিট ব্রেকার বিকল হওয়ায় বিদ্যুৎ সঞ্চালন করা সম্ভব হচ্ছে না। বড়পুকুরিয়া পাওয়ার গ্রিড সাব-স্টেশনের রক্ষনাবেক্ষণ কর্মকর্তা উপ-সহকারী প্রকৌশলী আরিফ হোসেন জানান আশা করা যাচ্ছে দুএকদিনের মধ্যে জাতীয় সঞ্চালন লাইনে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য