দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার ৫নং সুন্দরপুর ইউপি’র কান্তনগর গ্রামের ওমর ফারুকের কন্যা মোছাঃ ফারজানার সহিত একই উপজেলার সাহাড়াতোলী গ্রামের মোঃ তাইজুদ্দিন ওরফে তাজুর পুত্র মোঃ সেলিমের সঙ্গে বিবাহ হয় প্রায় ১০ মাস পূর্বে।

গত ২৯ জুন সকাল আনুমানিক সাড়ে ৯ টার সময় স্বামী স্ত্রী দুজনেই মিলে শ্বশুড় বাড়ি হতে ওষুধ নেওয়ার ১২ মাইলে বের হয়ে আর বাড়িতে ফিরেন নাই ফারজানা। এদিকে বিভিন্ন এলাকায় খোঁজা খুঁজি করার পরেও গৃহবধু ফারজানাকে কোথাও খুঁজে পায়নি তার পরিবার।

এদিকে ফারজানার পিতা ওমর ফারুক বাদী হয়ে তার জামাই সেলিম সহ ৪ জন কে আসামি করে গত ৫ জুলাই বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত, দিনাজপুর মামলা দায়ের করেছে। নারী ও শিশু মামলা নং- ৫২৯/২০১৭। গত ১২/০৭/২০১৭ বিজ্ঞ আদালতের আদেশক্রমে কাহারোল থানায় ওই মামলাটি এজাহার হিসাবে গ্রহণ করেন কাহারোল থানা।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ এ মামলার কোন আসামি গ্রেপ্তার করতে পারেনি এবং মামলার ভিকটিমকেও উদ্ধার করতে পারেনি। এদিকে আসামি সেলিমের পরিবার জানান যে, ভিকটিম ফারজানা তার বাবা বাড়ি হতে ওষুধ ক্রয়ের জন্য ১২ মাইল কান্তনগর মোড়ে গিয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য