দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বোচাগঞ্জে ছাতইল গ্রামে জমি সংক্রান্ত পূর্বের জেরকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের দেশীয় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আব্দুল ওয়াহেদ গুরুতর আহত হয়ে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলার ৫নং ইউনিয়নের ছাতইল গ্রামে গত আহসান হাবিবের পুত্র আব্দুল ওয়াহেদ (৩২) তার বাড়ী থেকে পুকুরে পায়ে হেঁটে যাচ্ছিলো। জমি সংক্রান্ত জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে প্রতিপক্ষের ৫/৭ জনের একটি দল জংলীপীর বাজার এলাকায় আব্দুল ওয়াহেদকে একা পেয়ে এলোপাথারিভাবে প্রহারের পর দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় রক্তাক্ত জখম করে।

আব্দুল ওয়াহেদের আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে ধারালো অস্ত্র সহকারে একজনকে আটক করলে বাকিরা পালিয়ে যায়। আটককৃতকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র সহকারে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবু’র মাধ্যমে বোচাগঞ্জ থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে।

এ ব্যাপারে বোচাগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে। যার নং- জিআর০৮/১৭ইং। এদিকে আব্দুল ওয়াহেদ গুরুতর আহত অবস্থায় বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এলে ডাক্তার প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

আব্দুল ওয়াহেদ এম আব্দুর রহিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার মাথার এক স্থানে ৭টি সেলাই অপর স্থানে ৩টি সেলাই হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ধৃত মিজানুর হত্যা মামলার আসামী বলে জানা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য