প্রবল বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে কাউনিয়া উপজেলার ৩টি ইউনিয়নের নি¤œাঞ্চলে বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যায় হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি হে পড়েছে।

সরেজমিনে বিভিন্ন চরাঞ্চল ঘরে দেখা গেছে উপজেলার চর গদাই, গুপিডাঙ্গা, প্রাননাথচর, চর ঢুসমারা, হয়বত খাঁ, চর গনাই, টাপুর চর, আজম খাঁ, হরিচরন শর্মা গ্রামে তিস্তা নদীর পানি ঢুকে বন্যা কবলিত হয়ে হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। সেই সাথে বিভিন্ন ইউনিয়নের রাস্তা ঘাট ভেঙ্গেগেছে, তলিয়ে গেছে বীজতলা। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির অভাব।

বন্যা কবলিত এলাকা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাহাফুজার রহমান মিঠু পরিদর্শন করে ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে বন্যা কবলিত মানুষেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। পরিদর্শন কালে তার সাথে ছিলেন প্রত্যাশার আলো পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক সারওয়ার আলম মুকুল। তিস্তা সেতু পয়েন্টে নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম না করলেও ১সেন্টি মিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

টেপামধুপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম জানান নদীর পানি বৃদ্ধিপেয়ে ইতি মেধ্যে বেশ কিছু গ্রামে বন্যা দেখা দিয়েছে, সেই সাথে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। বালাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আনছার আলী জানান ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলের গ্রাম গুলোতে বন্যা দেখা দিয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম জানান তিস্তা সেতু পয়েন্টে বিপদসীমার কাছ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য