ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের বাডগামে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ৩ গেরিলা নিহত হয়েছে। গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা থেকে শুরু হওয়া ওই সংঘর্ষ আজ (বুধবার) ভোর সাড়ে চারটা পর্যন্ত চলে। নিহত গেরিলারা হিজবুল মুজাহিদীনের সদস্য বলে বলা হচ্ছে।

গত (সোমবার) রাতে অমরনাথ তীর্থযাত্রীদের ওপর সন্ত্রাসী হামলায় হতাহতের ঘটনার পর নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে এটিকে বড় পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে। সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, অমরনাথ তীর্থ যাত্রীদের হামলার পর সন্ত্রাসীদের খোঁজে তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় মাগাম এলাকার রাদবাগ গ্রামে সন্ত্রাসীরা যৌথবাহিনীর উপরে গুলিবর্ষণ শুরু করে। এরপর উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ, রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং জম্মু-কাশ্মির পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ ওই অভিযানে অংশ নেয়।

নিহত গেরিলাদের হিজবুল মুজাহিদীনের সদস্য বলে বলা হলেও তাদের পরিচয় এখনো স্পষ্ট হয়নি। এ নিয়ে গত ৬ মাসে নিরাপত্তা বাহিনী ৯০’র বেশি সন্ত্রাসীদের নির্মূল করতে সক্ষম হয়েছে।

এদিকে, দক্ষিণ কাশ্মিরের সোপিয়ান জেলায় সন্ত্রাসী সংগঠনে শামিল হওয়ার চেষ্টার অভিযোগে পুলিশ ৩ যুবককে গ্রেফতার করেছে। সন্ত্রাসী সংগঠনে যোগ দেয়ার উদ্দেশ্য থাকায় গত কয়েক মাসের মধ্যে কাশ্মির উপত্যাকার বিভিন্ন অংশ থেকে পুলিশ কমপক্ষে ৫০ জন যুবককে গ্রেফতার করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য