আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: উজানের পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষণের ফলে তিস্তা নদীতে বন্যা দেখা দিয়েছে। সোমবার সকাল ৯টা থেকে লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ৩২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিস্তা ব্যারাজের সবকটি গেট খুলে দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।রোববার সন্ধ্যা ৬টায় তিস্তার পানি ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ১৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও রাত ১২টার পর তা দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পায়। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৩২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

একদিকে মুষলধারে বৃষ্টি অন্যদিকে তিস্তার পানি বৃদ্ধিতে চরম বিপাকে পড়েছে তিস্তা পাড়ের বন্যা দুর্গত এলাকার লোকজন।হঠাৎ পানি বেড়ে যাওয়ায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা ব্যারেজ এলাকা কালীগঞ্জের চরাঞ্চল এবং আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচাঁর তিস্তা পাড়ের ১৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। রোববার সন্ধ্যায় ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বাড়তে থাকলেও সোমবার সকাল থেকে পানির মাত্রা বেড়ে বিপদসীমার ৩২সেন্টিমিটারে ওঠে।

এদিকে বিষয়টি নিশ্চিত করে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যারেজের সবকটি জলকপাট (দরজা) খুলে রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যারেজের সবকটি জলকপাট (৪৪টি) খুলে রেখেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) কর্তৃপক্ষ। তিস্তা ব্যারেজের বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও পর্যবেক্ষন নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র সূত্র জানায়, উজানের ঢল আর অব্যাহত বৃষ্টিপাতের কারণে পানি বেড়েছে তিস্তা নদীতে। গতকাল বিকেল থেকে পানি প্রবাহ বাড়তে থাকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য