লন্ডনের উত্তরাংশের ক্যামডেন লক মার্কেটে বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার কথা জানিয়েছে লন্ডন ফায়ার সার্ভিস।

দশটি ফায়ার ইঞ্জিন নিয়ে দমকল বাহিনীর ৭০ জন কর্মীর প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানিয়েছে তারা।

সোমবার টুইটারে ফায়ার সার্ভিস বলেছে, “আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে কিন্তু পুরোপুরি নিভাতে সকাল পর্যন্ত কাজ করবে দমকল কর্মীরা।”

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, সোমবার প্রথম প্রহরে আগুন লাগার পর পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় এই বিপণি বিতানের দ্বিতীয় থেকে চতুর্থ তলা হয়ে ছাদ পর্যন্ত আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

আগুন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছিল বলে একজন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানিয়েছিল বিবিসি। আগুন পাশের ভবনগুলোতেও ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছিল।

আশপাশের ভবনগুলোতে রেস্তোরাঁ থাকায় সেগুলোতে আগুন ছড়িয়ে পড়লে বিস্ফোরণ ঘটার আশাঙ্কাও করছিলেন প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ কেউ। কিন্তু তার আগেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি এবং তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতেরও কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঘটনাস্থলে ছিলেন লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ ও অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের সদস্যরা।

এর আগেও লন্ডনের ক্যামডেন মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল। ২০০৮ সালে আগুনে মার্কেটটির স্টোরেজ এলাকা ও দোকানপাট ভস্মীভূত এবং সংলগ্ন বাড়িগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তারপর থেকে মার্কেটটির বড় একটি অংশ কয়েকমাস ধরে বন্ধ ছিল।

গত মাসে গ্রেনফেল টাওয়ার নামে লন্ডনের একটি ২৪তলা ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৮০ জন পুড়ে মারা যায়।

পরে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে জানিয়েছেন, ১২০টি বহুতল ভবন অগ্নিঝুঁকি পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য