জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার দবিরুল ইসলাম নামের একজনের লাশ হাকিমপুরের সাতকুড়ি রেললাইনের উপর থেকে উদ্ধার করেছে জিআরপি পুলিশ। মৃত দবিরুল ইসলাম (৩২) দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার পুটিমারা ইউনিয়নের মতিহারা (পরাণদিঘী) গ্রামের মৃত আনেছ আলীর ছেলে।

তার লাশ গত শনিবার উদ্ধার করে রবিবার সকালে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফনকার্য সমাধা করা হয়েছে। তার পরিবারের দাবী, তাকে ডেকে নিয়ে খুন করা হয়েছে। কি কারণে বা কে তাকে খুন করেছে সে ব্যাপারে তারা কিছু বলতে পারেননি।

মৃত দবিরুলের স্ত্রী লতিফা বেগম জানায়, তার স্বামী গত বৃহস্পতিবার বিকালে সন্তানদের নিয়ে নিজ গ্রামে অনুষ্ঠিত একটি মাজারের মেলায় যায়। সেখান থেকে তাকে কে বা কারা মোবাইল ফোনে ডাকলে সে সন্তানদের বাড়ী পাঠিয়ে চলে যায় বলে তার সন্তান তাকে জানায়।

এরপর সে আর বাড়ী ফিরে আসে নাই। বাড়ীতে না ফেরায় বিভিন্ন স্থানে তার সন্ধান করা হয়। গত শনিবার সংবাদ পায় তার স্বামীর লাশ হাকিমপুর উপজেলার সাতকুড়ি রেল লাইনের উপর থেকে হিলি জিআরপি পুলিশ উদ্ধার করেছে। এরপর মৃত দবিরুলের ভাই আনিছুর রহমান গত শনিবার রাতে মর্গ থেকে তার ভাইয়ের লাশ নিয়ে আসেন।

পার্বতীপুর জিআরপি পুলিশের অধিনস্ত হিলি ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই শাহ আলম সাংবাদিকদের জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে লাশের সংবাদ পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং রাত ১০টার দিকে লাশটি উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে একটি ইউডি মামলার পর লাশটি বেওয়ারিস হিসাবে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

নবাবগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত কুমার পাল জানান, বিষয়টি তিনি জানেন এবং জিআরপি পুলিশ ওই ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য