সহিংসতার নিন্দা ও জঙ্গি হামলায় হতাহতদের স্মরণে ইউরোপজুড়ে সাম্প্রতিক সন্ত্রাসী হামালার স্থানগুলোতে সফর শুরু করেছেন মুসলিম ধর্মীয় নেতারা।

শনিবার ফ্রান্স, বেলজিয়াম, যুক্তরাজ্য ও তিউনিসিয়াসহ বিভিন্ন দেশের মুসলিম জনগোষ্ঠীর নেতারা প্যারিসের শঁজেলিজে থেকে বাস যোগে যাত্রা শুরু করেন।

এসময় তাদের সঙ্গে অন্য ধর্মের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

এপ্রিলে এই শঁজেলিজেই সন্ত্রাসীদের গুলিতে ফরাসী পুলিশ সদস্য জাভিয়ের জুগেলে নিহত হয়েছিলেন।

মুসলিম জনগোষ্ঠীর নেতাদের এই সফর গত কয়েক বছরে সংঘটিত বড় বড় সন্ত্রাসী হামলার স্থান বার্লিন, ব্রাসেলস ও নিস হয়ে ফের প্যারিসে শেষ হবে।

বার্লিনে তারা জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন বলে আয়োজকরা আশা করছেন।

নিসে হামলার বর্ষপূর্তি ১৪ জুলাইয়ে এ সফর শেষ হবে । গত বছর বাস্তিল দিবস উদযাপনে নিসের সমুদ্রতীরে জড়ো হওয়া হাজারো মানুষের ওপর এক ট্রাক হামলায় ৮৬ জন নিহত হয়েছিলেন। জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছিল।

ডিসেম্বরে বার্লিনের এক ক্রিসমাস মার্কেটেও সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় ১২ জন নিহত হয়। এ হামলার দায়ও স্বীকার করেছিল আইএস।

ফ্রান্সের দে দেমস্যি শহরের ইমাম হাসেন চালঘৌমি এবং লেখক মারেক হল্টার ধর্মীয় নেতাদের এই ইউরোপ সফরের মূল উদ্যোক্তা ।

“আমরা এখানে জড়ো হয়েছি এটা বলতে যে, আমাদের ধর্ম এবং ইসলামের মূল্যবোধ ওইসব হত্যাকারীদের বিরোধিতা করে,” বাসযাত্রার শুরুতে ফ্রান্সের ইন্টার রেডিওকে বলেন হাসেন।

শনিবার বাসটিতে ৩০ জন যাত্রা করলেও পথে আরও অনেকে যুক্ত হবেন; আয়োজকরা বলছেন, সফরে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ৬০ জন হবে বলে তারা আশা করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য