আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করায় স্কুল ছাত্রীর বাবা মিজানুর রহমান (৪০) কে মারধর করে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি প্রদান করেন।
শনিবার দুপুরে আশংকাজনক অবস্থায় আহত মিজানুর রহমান (৪০) কে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫ম তলায় ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে,পাটগ্রাম উপজেলার বাউড়া ইউনিয়নে জমগ্রাম ডাংঙ্গা পাড়া গ্রামের মিজানুর রহমানে মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে ওই এলাকার কয়েক জন বখাটে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় ৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে মিজানর রহমান তাদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু ধর্ষণ, নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

মামলার জের ধরে বৃহস্পতিবার রাতে মিজানর রহমান (৪০) বাউড়া বাজারে আসলে ধর্ষণ মামলার আসামী আব্দুল মালেক (৩৫) ও তার সহযোগী সাফিউল (২৮), রফিকুল (৩০), আব্দুল জলিল (৩১) তাকে মারধর করেন এবং মামলা তুলে নেওয়া হুমকি প্রদান করেন। এসময় আসামীরা তার কাজ থেকে মামলা চালানোর জন্য এক লক্ষ টাকা দাবী করেন।

ওই দিন রাতে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় মিজানর রহমান কে পাটগ্রাম স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ভর্তি করান। পরে তার অবস্থা অবনতি হলে পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তব্যরত চিকিৎসক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।আহত মিজানুরে ভাই মাহামুদ আলম মামুন জানান, থানায় অভিযোগ করায় আমাকে এবং আমার দোকান পাঠে হামলা চালাবে বলে আসামীরা হুমকি প্রদান করছেন।বাউড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বসুনিয়া দুলাল জানান, আমি ঘটনাটি শুনেছি এ বিষয়ে কেউ আমাকে অভিযোগ করেনি।পাটগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক এসআই আব্দুল হালিম জানান,এঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য