যুক্তরাষ্ট্রের বহু পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তাব্যবস্থা হ্যাকাররা ভেঙে ফেলেছিল বলে সম্প্রতি প্রকাশিত এক গোয়েন্দা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বেশ কয়েকটি মার্কিন গণমাধ্যম।

চলতি বছরের মে-জুন মাসে হ্যাকাররা ওই আক্রমণ চালিয়েছিল, যার অন্যতম লক্ষ্য ছিল কানসাসের উলফ ক্রিক পারমাণবিক কেন্দ্র; নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এমনটাই জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগের (ডিএইচএস) এক জরুরি প্রতিবেদনে ওই আক্রমণের জন্য বিদেশি শক্তিকে দায়ী করা হয়েছে; সম্ভবত রাশিয়া এর জন্য দায়ী বলে ওই প্রতিবেদনে ইঙ্গিত করা হয়েছে। ডিএইচএসের প্রতিবেদনে হ্যাকারদের আক্রমণকে নিরাপত্তার জন্য দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ঝুঁকি আখ্যা দেওয়া হয়েছে। উলফ ক্রিক অপারেটিং করপোরেশন তাদের পরিচালনাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্র হ্যাক হয়েছিল কি না সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য না করলেও জানিয়েছে, বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিচালনায় ‘কোনো ধরনের বিঘœ ঘটেনি’। সত্যি হচ্ছে কেন্দ্র পরিচালনায় ব্যবহৃত কম্পিউটার সিস্টেম আমাদের কর্পোরেট নেটওয়ার্ক থেকে আলাদা, রয়টার্সকে বলেন উলফ ক্রিক অপারেটিং কর্পোরেশনের মুখপাত্র জেনি হ্যাগম্যান।

পরে এফবিআইয়ের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ডিএইচএস জানায়, ওই হ্যাকিংয়ের কারণে ‘জননিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়েছে, এমন কোনো ইঙ্গিত মেলেনি’।

হ্যাকাররা মূলত বিদ্যুৎকেন্দ্রের কম্পিউটার নেটওয়ার্কের ম্যাপ নিতে চেষ্টা করেছিল, যেন ভবিষ্যতে আরও কার্যকর আক্রমণ করা যায়- ডিএইচএসের রিপোর্ট দেখে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

হ্যাকাররা বিদ্যুৎকেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত উচ্চপদস্থ প্রকৌশলীদের ইমেইল পাঠিয়েছিল এবং চাকরির আবেদনপত্রগুলো ক্ষতিকারক কোড ব্যবহার করে নকল করেছিল।
নিউ ইয়র্ক টাইমসকে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রাশিয়ান বিশেষজ্ঞরা আগে ঠিক এই কৌশল ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রের জ¦ালানি ব্যবস্থাপনাগুলোতে আক্রমণ চালিয়েছিল।

২০১৫ সালে ইউক্রেনের বিদ্যুৎব্যবস্থা ধসিয়ে দেয়ার জন্য রাশিয়া সমর্থিত হ্যাকারদেরই দায়ী করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তকারীরা।

রয়টার্স বলছে, সাম্প্রতিক সময়ে বিদেশের শিল্প-কারখানাগুলোর নেটওয়ার্কে ঢুকতেও হ্যাকারদের ব্যবহার করার প্রবণতা বাড়ছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল এর আগে স্টাক্সনেট ওর্ম ব্যবহার করে ইরানের একটি পারমাণবিক কেন্দ্রের পারমাণবিক সেন্ট্রিফিউজের দখল নিয়েছিল এবং সেগুলোকে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি জোরে ঘোরার নির্দেশ দিয়েছিল, যা ওই কেন্দ্রের চরম ক্ষতি করেছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য