ঘূর্ণিঝড় মোরার আঘাতে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য জরুরি ত্রাণ সহযোগিতার অংশ হিসেবে বাংলাদেশকে ১০ লাখ ইউরো সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ৯ কোটি ১৮ লাখ ২৫ হাজার ৪শ টাকা। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইউরোপীয় কমিশন এ সহায়তার কথা জানায়।

গত মে মাসের শেষের দিকে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের উপকূলে আঘাত হানে মোরা। গতকাল বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় কমিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের হাজার হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং তাদের জন্য জরুরিভাবে মানবিক সহায়তা প্রয়োজন। এসব পরিবার তাদের ঘরবাড়ি, জিনিসপত্র এবং কেউ কেউ আয়ের উৎস হারিয়েছে।’

হিউম্যানিটারিয়ান এইড এ- ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট এর ইইউ কমিশনার ক্রিস্টস স্টিলিয়ানাইডেস বলেন, ‘ইইউ এর এ নতুন অনুদানের মধ্য দিয়ে আশ্রয়হারা মানুষদের জন্য আশ্রয় গড়ে দেওয়া হবে এবং এ কঠিন সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে টিকে থাকার মতো ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।’

বাংলাদেশ সরকারের তথ্যকে উদ্ধৃত করে ইউরোপীয় কমিশন জানায়, ঘূর্ণিঝড় মোরার কারণে ৫২ হাজার ঘরবাড়ি নষ্ট হয়ে গেছে, ২ লাখ মানুষকে আশ্রয়হারা হতে হয়েছে।

ইউরোপীয় কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মোরার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত আরেক দেশ মিয়ানমারকেও ৫ লাখ ইউরো সহায়তা দেওয়া হবে। বিশেষ করে রাখাইন রাজ্যের উত্তর অংশে এ সহায়তা দেওয়া হবে।

কমিশনের ইউরোপিয়ান সিভিল প্রটেকশন এ- হিউম্যানিটারিয়ান এইড অপারেশনস (ইকো) এর মাধ্যমে সহায়তা পাঠাবে ইইউ। জরুরিভাবে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করার পাশাপাশি খাদ্য সহায়তা ও বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, স্বাস্থ্য সুরক্ষা, স্যানিটেশন সুবিধার ওপর জোর দেওয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য