দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ একটি দ্বীপের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতিকে ‘গুরুতর রাজনৈতিক ও সামরিক প্ররোচনা’ বলে বর্ণনা করেছে চীন। যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনীর ওই নিয়ন্ত্রিত ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ারটি গত রোববার পারাকেল দ্বীপপুঞ্জের ট্রিটন দ্বীপের ১২ নটিক্যাল মাইল দূর দিয়ে চলে যায়, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও বিবিসি।

একইসঙ্গে চীন, তাইওয়ান ও ভিয়েতনাম এই দ্বীপগুলোর মালিকানা দাবী করে আসছে। এই তিনটি জাতির মালিকানার দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানাতেই সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে ডেস্ট্রয়ারটি গিয়েছিল বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘নৌচলাচলের স্বাধীনতা’ অভিযানে অংশ হিসেবে ডেস্ট্রয়ারটি ওই এলাকায় চলাচল করেছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থাগুলো ও ফক্স নিউজ।

রোববার রাতে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের জাহাজটি চীনের জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ ‘গুরুতর রাজনৈতিক ও সামরিক প্ররোচনা’ বলে বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়েছে। মার্কিন যুদ্ধজাহাজটিকে সতর্ক করতে তারা যুদ্ধজাহাজ ও জঙ্গি বিমান পাঠিয়েছিল বলে জানিয়েছে।

রোববার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ফোনে কথা বলার কয়েক ঘন্টা আগে এসব ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য