দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরে বীরগঞ্জে ভূষণি ঋষি (৫০) নামে আদিবাসী এক বৃদ্ধাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের। শনিবার রাতে বীরগঞ্জ থানায় নিহতের ছেলে গোপাল ঋষি বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫জনকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে বাদল ঋষির স্ত্রী রশ্নি ঋষি (৩৫) এবং মৃত বিস্তার উদ্দিনের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৫০) কে এই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকীদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি আবু আককাছ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে নিহতের ছেলে রাতেই অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। মামলা নম্বর-০১ তারিখ-০১/০৭/১৭ইং।

উল্লেখ, উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের ভাবকি মুশহর পাড়া গ্রামের কেশরি ঋষির স্ত্রী ভূষণি ঋষি (৫০)এর সাথে শুক্রবার বিকেলে প্রতিবেশি বাদল ঋষির স্ত্রী রশ্নি ঋষি (৩৫)এর ঝগড়া হয়। পরদিন সকালে এলাকাবাসী বাড়ীর পার্শ্বে ভূট্টা খেতে ভূষণি ঋষির লাশ পড়তে দেখে পরিবারের লোকজনকে সংবাদ দেয়। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে সুরতহাল শেষে লাশ উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ নিহতের স্বামী কেশরী ঋষি (৬০) এবং তার দ্বিতীয় স্ত্রী সকিনা ঋষি (৩৫), বাদল ঋষির স্ত্রী রশ্নি ঋষি (৩৫), তার জামাই বোচাগঞ্জ উপজেলার কলেজ পাড়া গ্রামের মৃত সলিন্দর ঋষির ছেলে দুলাল ঋষি (২৬) এবং ভাবকী গ্রামের মৃত বিস্তার উদ্দিনের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৫০)সহ ৫জনকে আটক করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য