দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর থেকেঃ দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার সাতনালা গ্রামের ঝাঁড়–য়ারপাড় কাঁচা সড়কের গুরুত্বপূর্ণ কালভার্টটি যেন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে। চার মাস আগে কালভার্টটি ভেঙ্গে পড়ায় এখন পর্যন্ত মেরামত না করায় পথচারীদের দূর্ভোগ এখন চরমে।

বর্তমানে বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করার ফলে মারাত্মক দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারন মানুষকে। এই গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি বিশেষ করে আমন ও ইরি ধান কাটার সময় আসার সাথে সাথে অত্যান্ত ব্যাস্ততম সড়ক হয়ে উঠে। সাতনালা গ্রামের ব্যবসায়ী আরিফ, অটোচালক ছপির উদ্দিন, ভ্যান চালক তাহের উদ্দিন জানান, কিছুদিন আগে কালভার্টের নিচের দিকে কাজ শুরু করলেও সর্ম্পুন কাজ শেষ না করেই পরে তা একেবারেই থেমে যায়।

তারা আরো জানায়, এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করলে সহজেই পাকা রাস্তায় উঠে বিভিন্ন হাটবাজার সহজে পৌছা যায়। সরেজমিন দেখা যায় গ্রামের লোকজন কালভার্ট ভেঙ্গে যাওয়ার পর বাঁশের সাঁকো দিয়ে যানবাহন পার করছে। তবে কালভার্টটি ভেঙ্গে যাওয়ার পরেও থেমে নেই এখানকার অটোরিক্সা, রিক্সা,ভ্যান, মটরসাইকেল (ভূটভূটি) ও মালবাহী গাড়ী চালকদের জীবনের চাকা। তারা প্রতিনিয়ত জীবিকার ত্যাগিদে বের হচ্ছেন অন্য রাস্তা দিয়ে।

এতে করে অধিক ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে যাত্রী সাধারনকে । আবার অনেকে রিক্সা ভ্যান ঝুঁকি নিয়ে বের হচ্ছেন এই রাস্তা দিয়েই। স্কুল মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শতশত শিক্ষার্থী ব্যবসায়ীদের যাতায়াত করতে হয় এই সড়ক দিয়ে। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসীর আবেদন, কালভার্টি দ্রুত সংস্কার করা হলে মানুষের চলার পথ সুগম হবে। এ ব্যাপারে সাতনালা ইউপি চেয়ারম্যান মো: ফজুলুর রহমান জানান, প্রয়োজনীয় বরাদ্দ না থাকায় কাজ শুরু করেও শেষ করতেই পারি নাই। তবে দু-একদিনের মধ্যে কালভার্টটি সম্পুর্ন মেরামত করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য