মো. জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) থেকেঃ ঈদের কেনাকাটা প্রায় শেষ পর্যায়ে। ঈদের আর কয়েকদিন বাকি। ফলে তরুণী ও গৃহিনীরা এখন রুপচর্চায় বিউটি পার্লারমুখি হচ্ছেন। উৎসবের দিনে নিজেদের মনের মতো করে সাজিয়ে তুলতে সৌন্দর্য পিপাসু তরুণী ও গৃহিনীরা ভিড় করছেন পার্লারগুলোতে। নীলফামারী জেলার বাণিজ্যিক উপজেলা শহর কিংবা শহরের উপকন্ঠে গড়ে উঠেছে বিউটি পার্লার। যুগের হাল ফ্যাশনে নারী তার অঙ্গভূষনে এবং সাজসজ্জায় নানা রকম বৈচিত্র এনেছে। ফলে এসব পার্লারের ব্যবসাও জমজমাটভাবে চলছে।

এ কারণে রুপচর্চায় সুন্দর ও আকর্ষনীয় মুখ, চুল ও হাতে-পায়ের শোভা বর্ধনে নারীরা বেছে নিয়েছেন বিউটি পার্লার। ঈদকে সামনে রেখে পার্লারগুলো নানা রকম প্রসাধনী নিয়ে তাদের কাষ্টমারদের মনোরঞ্জনে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এদিকে তরুণী- গৃহিণীদের পাশাপাশি সাজ- সজ্জায় পিছিয়ে নেই ছেলেরাও। তারাও বিভিন্ন ধরণের হেয়ার কাটিং, চুল কালার ও ফেসিয়াল করতে ভিড় করছেন সেলুনগুলোতে।

বর্তমানে বিউটি পার্লার ও সেলুনগুলোতে ঈদ বাণিজ্য জমজমাট হয়ে উঠেছে। বিউটি পার্লারে নিত্যনতুনভাবে রমনীদের সাজাতে ভ্রু প্ল্যাক, ভ্রু পেইন্ট, চুল কাটিং, মেহেদি লাগানোসহ বিভিন্ন ধরণের ফেসিয়াল কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন পার্লার পরিচালক ও বিউটিশিয়ানরা।

সৈয়দপুর প্লাজা মার্কেটের পার্লার মালিকরা জানিয়েছেন, অন্য বছরের তুলনায় এবারের ঈদে ভ্রু প্ল্যাক, ভ্রু পেইন্ট ও মেহেদির কাজ বেশি হচ্ছে। এছাড়া ফেসিয়াল ও হেয়ার স্টাইলের কাজও হচ্ছে অনেক। বর্তমানে পার্লারে কাজ করতে অনেকটা হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। প্রতিটি কাজের জন্য আলাদা মূল্য নেওয়া হচ্ছে। বিউটি পার্লারে সেবার তালিকায় রয়েছে ভ্রু প্ল্যাক, আপার লিপ, ফুল ফ্রেম থ্রেডিং, মেকাপ পার্টি, রাহুল কাট, ফ্রন্ট লেয়ার, খোঁপা, রিং খোঁপা, কান ফোড়ানো, নাক ফোড়ানোসহ সৌন্দর্য বর্ধনে স্পেশাল ট্রিটমেন্ট ইত্যাদি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য