বৃহস্পতিবার সকালে কুড়িগ্রামের রাজারহাটে সার্জেন পুলিশের ধাওয়া খাওয়া ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক সাইকেল আরোহীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় জনগণ সার্জেন পুলিশকে ধাওয়া করে ঘাতক ট্রাকটিকে আটকিয়ে রাখে। এসময় ট্রাক চালক পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে রাজারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে বিক্ষুব্ধ জনগণ পুলিশকেও ধাওয়া করে। ধাওয়া খেয়ে পুলিশ পিছুটান মারে। পরে রাজারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ট্রাকটি ইউনিয়ন পরিষদে হেফাজতে নিয়ে আসে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজারহাট-তিস্তা সড়কের মন্ডলের বাজার নামক স্থানে সার্জেন পুলিশ এসআই জিয়াউর রহমান প্রতিদিন মটর যানের লাইসেন্স পরীক্ষা করা নাম করে ঘুষ বানিজ্য করার অভিযোগ তোলে। প্রতিদিনের ন্যায় ২২জুন বৃহস্পতিবার সকালে ওই স্থানে মটর যানের লাইসেন্স পরীক্ষার সময় রাজারহাটগামী একটি ট্রাক যার নম্বর ঢাকা মেট্রো-ট-১৮৮৯৩৬ উপস্থিত হলে সার্জেন পুলিশ জিয়া ট্রাকটিকে ধাওয়া করে।

ধাওয়া খেয়ে ট্রাকটি বেপরোয়া চালার সময় রাজারহাট বাজার রেলগেট এলাকায় সাইকেল আরোহী জয়নাল আবেদীন(২৮)কে ধাক্কা দিলে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে যায়। পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে রাজারহাট হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনগণ রাজারহাট-তিস্তা সড়ক অবরোধ করে ঘাতক ট্রাকটি আটক করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই এলাকাটি থমথমে ভাব বিরাজ করছে।

দূঘটনাকবলিত জয়নাল আবেদীন রাজারহাট ইউনিয়নের দেবীচরন গ্রামের আঃ আউয়ালের পুত্র বলে জানা গেছে। এদিকে ঘটনাস্থলের বিক্ষুব্ধ জনগণ সার্জেন পুলিশ জিয়ার শাস্তি দাবী করে দফায় দফায় বিক্ষেভ করে। এ ঘটনায় রাজারহাট থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোখলেসুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসার জন্য দফায় দফায় আলোচনা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য