বিলম্বে কাজ শুরু করার কারণে কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলার রাজিবপুর সদর ইউনিয়নের কর্মসৃজন প্রকল্পের প্রায় ৩লক্ষ টাকা ফেরৎ গেল সরকারের ঘরে। বঞ্চিত হল এলাকার প্রায় ৫ শত হত দরিদ্র মানুষ। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সুত্রে জানা গেছে,১ম পর্যায়ে রাজিবপুর সদর ইউনিয়নের তালিকা দেরিতে অফিসে পৌঁছায়।

ফলে অফিস এমআইএস পাঠাতে দেরি করে। এতে ৩ কার্জ দিবস পিছিয়ে যায়। প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস আরও জানায়,গত ২২ ফেব্রয়ারিতে কাজ শুরু করার কথা থাকলেও অফিস তা পারেনি। তালিকা প্রস্তুত দেরিতে করার কারণে ২৫ ফেব্রুয়ারিতে কাজ শুরু করা হয়। এদিকে অভিযোগ উঠেছে,তালিকা তৈরিতে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা সময় মত তালিকা তৈরি না করে অর্থ সংগ্রহ করতে থাকে।

ফলে সঠিক সময়ে তালিকা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে পৌছাইনি। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল আলম বাদল জানায়,আমি সঠিক সময় তালিকা অফিসে জমা দিয়েছি,আমাকে হেয় করার জন্য এক দল কুচক্রি মহল আমার কুৎসা রোটাচ্ছে।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফিজানুর রহমান জানান, আমি দায়িত্ব গ্রহন করেছি মাত্র ,এ ব্যাপারে আমার পূর্ববর্তি কর্মকর্তা জানেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাউজুল কবীর বার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করেও তার সাক্ষাৎ পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য