রাতের আঁধারে থাইল্যান্ডের রাজা মাহা ভাজিরালংকর্নকে লক্ষ্য করে এয়ার পিস্তল দিয়ে গুলি ছুঁড়েছিল দুই কিশোর, তবে এতে রাজার শরীরে কোনো আঘাত লাগেনি বলে জানিয়েছে জার্মানির কর্তৃপক্ষ।

১০ জুন রাতে জার্মানির এর্দিং শহরে একটি বাড়ির জানালা থেকে ১৩ ও ১৪ বছরের দুই বালক রাজাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কৌঁসুলিরা, খবর বিবিসির।

ওই সময় নিজের পরিষদবর্গদের সঙ্গে নিয়ে মিউনিখ বিমানবন্দরের কাছে সাইকেল চালাচ্ছিলেন রাজা ভাজিরালংকর্ন, যিনি অধিকাংশ সময় জার্মানিতে থাকেন।

বালকদের ছোঁড়া গুলি রাজার শরীরে লেগেছে কি না তা পরিষ্কার হওয়া যায়নি, তবে এ ঘটনায় কেউ আহতও হয়নি।

গত বছর পিতা রাজা ভুমিবল আদুলিয়াদজের মৃত্যুর পর ‍থাইল্যান্ডের সিংহাসনে বসেন ভাজিরালংকর্ন।

স্থানীয় কৌঁসুলি দপ্তরের এক মুখপাত্র বলেন, “রাজার শরীরে গুলি লেগেছিল কি না তা এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রাজা একটি দলের সঙ্গে সাইকেল চালানোর সময় দলটিকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়েছে, এ পর্যন্তই জানা গেছে।”

পরে দলটি রাজার গাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আবার গুলি করা হয় বলেও জানিয়েছেন তিনি।

“মোট কতটি গুলি করা হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি। একটির বেশি গুলি করা হয়েছে এটাই জানতে পেরেছি,” বলেন তিনি।

তারা কাদের দিকে গুলি করছে বালকগুলো তা জানতো কি না তাও পরিষ্কার নয়।

শারীরিক ক্ষতি করার চেষ্টা করেছে সন্দেহে ১৪ বছর বয়সী বালকটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, কিন্তু এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ দায়ের করতে অস্বীকার করেছেন ভাজিরালংকর্ন।

অপরদিকে জার্মানির আইনানুযায়ী জিজ্ঞাসাবাদ করার পক্ষে ১৩ বছরের বালকটি বয়স কম হওয়ায় তাকে তদন্তের আওতায় আনা হয়নি।

“ওই বালকদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি পদক্ষেপ নিতে আগ্রহী নন রাজা, কিন্তু জার্মানির আইনানুযায়ী অভিযোগ আনার বিষয়টি ক্ষতিগ্রস্তের ওপর নির্ভর করে না,” বলেছেন কৌঁসুলি দপ্তরের ওই মুখপাত্র।

মিউনিখের দক্ষিণে একটি হ্রদ এলাকায় ভাজিরালংকর্নের দুটি বাগানবাড়ি আছে বলে জানিয়েছে জার্মানির একটি সংবাদপত্র।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য