বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে মোছাঃ জোৎন্সা আকতার (২৫) নামে এক গৃহবধুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামীকে খুজে পাওয়া যায়নি।

মোছাঃ জোৎন্সা আকতার রংপুর জেলার গংগাচড়া উপজেলার পুর্ব কচুয়া গ্রামের মোঃ মাহবুব আলমের স্ত্রী।

বুধবার দুপুর সাড়ে ৩টায় বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের উত্তর বিজয়পুর হাজিপাড়া গ্রামের ভাড়া বাড়ী হতে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বাড়ীর মালিক বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের উত্তর বিজয়পুর হাজিপাড়া গ্রামের মৃত মোস্তাফা কামালের ছেলে মোঃ হাসান জানান, গত মাসে রংপুর জেলার গংগাচড়া উপজেলার পুর্ব কচুয়া গ্রামের মোঃ সাইফুল ইসলামের ছেলে মোঃ মাহবুব আলম (২৯) বাড়ীটি ভাড়া নেয়। এ সময় তিনি নিজেকে নীল সাগর গ্রুপের কর্মকর্তা পরিচয় দেন। বাড়ী হস্তান্তনের পর থেকেই একমাত্র স্ত্রী জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার গোয়ালের চর গ্রামের ওসমান আলীর মেয়ে মোছাঃ জোৎন্সা আকতারকে নিয়ে বসবাস শুরু করেন।

আজ বুধবার আত্মহত্যার বিষয়টি জানতে পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। কিন্তু ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতের স্বামী মোঃ মাহবুব আলমকে পাওয়া যায়নি। মোঃ মাহবুব আলমকে না পেয়ে বাড়ী মালিক হিসেবে আমি দুপুর সাড়ে ৩টায় বিষয়টি লিখিত ভাবে বীরগঞ্জ থানাকে অবহিত করি এবং নিহতের পরিবারকে সংবাদ প্রদান করা হয়েছে। তারা ঘটনাস্থলে রওয়ানা হয়েছেন।

প্রতিবেশিদের উদ্বৃত্তি দিয়ে তিনি আরও জানান, মোঃ মাহবুব আলম আজ বুধবার সকাল ৮টায় তিনি অফিসের উদ্যেশে বেড়িয়ে যাবার পর সকাল সাড়ে ৯টায় আবার ফিরে আসেন। এসে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকির পর কোন সাড়া না পেয়ে ঘরে দেওয়াল ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে স্ত্রীর ওড়না দিয়ে ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান। পরে তিনি লাশ লামিয়ে ফেলেন।

বীরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ আনোয়ার হোসেন লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছেন। তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং সুরতহাল লিপিবদ্ধ করে মৃতদেহের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

বীরগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মোঃ মোহছে-উল গনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে থানার একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের পর জানা যাবে এটি আত্মহত্যা না হত্যাকান্ড। রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর সে আলোকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য