দিনাজপুর সংবাদাতাঃ কবি সুফিয়া কামালের ১০৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০ জুন মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় কবি সুফিয়া কামালের ১০৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে জেলা কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান।

উক্ত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম। তিনি বলেন, এদেশের সকল গণতান্ত্রিক সংগ্রামে,নারীমুক্তি তথা মানবমুক্তির সংগ্রামে, বুদ্ধির মুক্তি আন্দোলনে,সাংস্কৃতিক আন্দোলনে সুফিয়া কামাল ছিলেন সামনের কাতারে।

কোন অপশক্তি তার পথ রোধ করতে পারেনি, মৃত্যুভয় উপেক্ষা করে তিনি এগিয়ে গেছেন, বিনাদ্বিধায়। এই দেশ, এই জাতির বিরুদ্ধে যখনই উচ্চারিত হয়েছে অশুভ কোন কথা, আয়োজিত হয়েছে কোন ষড়যন্ত্র , তখনি মাথা তুলে দাড়িয়েছেন, দিয়েছেন দিক নির্দেশনা।

তিনি ছিলেন স্বশিক্ষিত, নির্মোহ , নির্ভীক, আপোষহীন, প্রতিবাদী, সত্যদ্রষ্টা, মানবদরদী, অসাম্প্রদায়িক , গণতান্ত্রিক মুক্ত বুদ্ধি সম্পন্ন এক জাগ্রত অগ্রসর পথিক বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এর প্রতিষ্ঠাতা বেগম সুফিয়া কামাল। মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখার সহ- সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারা সানু। তিনি বলেন , কবি সুফিয়া কামাল প্রথাগত প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত না হয়েও হৃদয়ের অপরিসীম সহানুভূতি-ক্ষমতায় স্বশিক্ষিত এক পূর্ণ মানব।

কবি হিসেবে সুফিয়া কামালের পরিচিতি যেমন উজ্জ্বল তেমনি বুদ্ধিজীবী হিসাবেও তাঁর ভাবমূর্তি এবং সামাজিক ভূমিকাও ছিল প্রশংসনীয়। দেশের বিভিন্ন সমাজিক,সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক আন্দোলনে প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন,দমন,পীড়ন ও গণবিরোধী শাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন,স্বাধীনতার পরবর্তীকালেও তাঁর মাতৃবৎ ভূমিকার জন্য সকলের নিকট জননীর সম্মান ও শ্রদ্ধা লাভ করেন।

এছাড়াও আরো বক্তব্য দেন, মহিলা পরিষদ,দিনাজপুর জেলা শাখার সহ- সভাপতি মাহ্Ÿুবা খাতুন, সম্মানীত সদস্য আকতার কহিনুর ইসলাম,চেহেল গাজী স্কুল এবং কলেজের প্রভাষক রুকসানা বিলকিস, লিগ্যালএইড সম্পাদক জিন্নুরাইন পারু,আয়শা বেগম, জেসমিন, শিবানি উড়াও ও পাড়া কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাংগঠনিক সম্পাদক রুবিনা আকতার।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য