মো. জাকির হোসেন, সৈয়দপুর থেকেঃ নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি কারিগরী কলেজের ৮ম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র সিরাজুল ইসলাম মনির খান সাকিব হত্যার দ্বিতীয় বর্ষে এসে এর বিচার দাবি ও খুনিদের অবিলম্বে শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও মিছিল হয়েছে।

শনিবার (১৭ জুন) সকাল ১০ টায় সাকিব হত্যার বিচারের দাবিতে সৈয়দপরের সর্বস্তরের শিক্ষার্থী ব্যানারে সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে সরকারি কারিগরি কলেজের শিক্ষার্থী ছাড়াও সামাজিক সংগঠনের পাশাপাশি অংশ নেয় বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন সাকিবের বাবা মো. হাবিবুর রহমান খান, সাকিবের সহপাঠি কাজী তানজিজুল হক তানজিল, খন্দকার আবিদা সুলতানা রিয়া, মুজাহেদীন ইসলাম চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল হৃদয়, কাজী নাইম ইজাজ সহ অন্যান্য সহপাঠিরা।

এছাড়া মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন শিক্ষার্থীদের পক্ষে আসাদুজ্জামান আসাদ, শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের সাধারণ সম্পাদক খুরশিদ জামান কাকন, আমাদের প্রিয় সৈয়দপুরের সাংগঠনিক সম্পাদক মিঠুন হাসান আয়ান, সেতুবন্ধুনের সভাপতি আলমগীর হোসেন, পরিবতর্ন চাই নীলফামারী জেলার টিম লিডার নাইমুল ইসলাম নয়ন, সৈয়দপুর বন্ধন শিল্পিগোষ্ঠির সাধারণ সম্পাদক রইচ উদ্দিন রকি, ব্লাড ডোনেট ফাউন্ডেশনের সভাপতি আব্দুল্লাহ চৌধুরী, ঢাকাস্থ সৈয়দপুর ছাত্র কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাজির আহমেদ, টিফিন’র প্রতিষ্ঠাতা তানভীর ফুয়াদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাকিব হত্যার দ্বিতীয় বর্ষ পেরিয়ে গেলেও এখনো এর বিচার না হওয়া ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং অবিলম্বে এর সুষ্ঠু বিচারের দাবি তোলেন প্রশাসনের কাছে। বিচারে গড়িমসি হলে ভবিষ্যতে আরো কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেয় সৈয়দপুরের ছাত্র সমাজ। মানববন্ধন শেষে সাকিব হত্যা বিচারের দাবিতে এক বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে।

উল্লেখ্য গত ২০১৫ সালের ১৩ জুন সাকিবের গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটে সরকারি কারিগারি কলেজ সংলগ্ন আবাসিক এলাকায়। এখন পর্যন্ত এই ঘটনায় কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। তবে পুলিশের একটি সূত্রে জানা গেছে মামলাটি বর্তমানে সিআইডির কাছে তদন্তাধীন রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য