কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ আর মাত্র কয়েকদিন পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মুসলামান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। আর এই ঈদুল ফিতর বা ঈদ কে সামনে রেখে দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় জমে উঠেছে ঈদের বাজার। দিন যত ঘুনিয়ে আসছে, কাপড়ের দোকান ও গার্মেন্টস দোকানগুলোতে বাড়ছে ভীড়। দেখা গেছে, পুরুষ ক্রেতাদের চেয়ে নারী ও শিশু ক্রেতাদের সমাগম অনেক হারে।

সকাল ১০ টার পর থেকেই রাত সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত কাপড়ের মার্কেট গুলোতে কেনাকাটা ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করছে ক্রেতা ও বিক্রেতারা। এদিকে কাহারোল উপজেলা সদর সহ ৬টি ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট-বাজার গুলো ঘুরে দেখতে গিয়ে জয়নন্দ বাজার ও বলেয়া বাজারে কাপড় ব্যবসায়ী জুয়েল এবং আরমানের সাথে কথা হলে তারা জানান, গত বছরের চেয়ে এবছর কাপড় ক্রেতারা তাদের পছন্দনীয় পোশাক ক্রয় করার জন্য দিনের বেলার চেয়ে রাতের বেশি ভীড় পরিলক্ষিত হচ্ছে এর ফলে বেচাবিক্রিও অনেকটাই ভাল হওয়ায় মনের আনন্দে দোকানদারী করছি আমরা ব্যবসায়ীরা।

কয়েকজন কাপড় ক্রেতার সঙ্গে কথা হলে তারা জানান, আমাদের বছরের প্রথম ঈদ হচ্ছে ঈদুল ফিতর। এই ঈদে পরিবারের ছোট বড় সবাই মিলে নতুন জামা ক্রয় করে থাকি প্রতিবছরই। কিন্তু গত বছরের চেয়ে এবছর পছন্দনীয় পোশাকের দাম অনেক হারেই বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে গরীব ও মধ্যবিত্তরা পোশাক ক্রয় করতে হিমসিম খাচ্ছে। এই ঈদকে সামনে রেখে গার্মেন্টস ও থান কাপড় ব্যবসায়ীরা গতবছরের লোকসান এবছর পুষিয়ে নেওয়ার আশা করছে অনেকেই।

কাপড় ব্যবসায়ীরা ঈদ কে সামনে রেখে বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাক দোকানের সামনে ক্রেতাদের আকর্ষণের জন্য টাঙ্গিয়ে রেখেছেন। কাহারোলে বর্তমানে ঈদ মার্কেট গুলোতে দিন দিন উপচে পড়া ভীড় পরিলক্ষিত হচ্ছে। তবে এবার পুরুষ ক্রেতাদের চেয়ে নারী ও শিশু ক্রেতাদের সমাগম হচ্ছে ঈদের মার্কেটগুলোতে। অনেক ক্রেতা তাদের পোশাক ক্রয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের কসমেটিকস সামগ্রীক ক্রয় করতে দেখা যাচ্ছে। ঈদ কে সামনে রেখে কাহারোলের সর্বত্রই দিন দিন জমে উঠছে ঈদের বাজার। অপরদিকে কাহারোল উপজেলায় ঈদ কে সামনে রেখে অবিরাম ভাবে দর্জির দোকানগুলোতে চলছে পোশাক তৈরীর কাজ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য