দিনাজপুর সংবাদাতাঃ “আঙ্গুর ফল টক ?” কে বলে ! প্রবাদ বাক্যটিকে মিথ্যা প্রমাণিত করেছে দিনাজপুর সরকারি মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক সাদিয়া সুলতানা।

দিনাজপুর শহরের বালুবাড়ী মহল্লার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ হুমায়ুন কবীরের ৫ম কন্যা মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক ২০১৫ সালে ঢাকাস্থ তার বড় বোনের বাড়ীর ছাদে লাগানো আঙ্গুর গাছের চারা এনে নিজেদের বাসায় লাগায়। শুধু গোবর সার আর যতœ দিয়ে আঙ্গুর গাছে আজ থোকা থোকা আঙ্গুর ফল ফলেছে।

সে প্রমাণ করের দিয়েছে দিনাজপুরের মাটিতে মিষ্টি আঙ্গুর ফল আবাদ করা যায়। ইতিপূর্বে দিনাজপুরে অনেকে আঙ্গুর গাছ লাগিয়েছিল এবং আঙ্গুর ফলও হয়েছে প্রচুর কিন্তু বেজায় টক। মুখে দেয়া যায় না। সাদিয়া সুলতানা এবার মিষ্টি আঙ্গুর তার গাছে ফলিয়ে প্রমাণ করেছে দিনাজপুরের মাটিতেও মিষ্টি আঙ্গুর ফল হয়।

থোকা থোকা সুসাদু আঙ্গুর ফল খেতে মহল্লার লোকজন এবং আত্মিয়-স্বজনরা প্রতিদিন আসছে। আঙ্গুর গাছটি পরিচর্যা করতে তাকে সহযোগিতা করেছেন তার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবীর ও তার দ্বিতীয় কন্যা প্রভাষক সুফিয়া কবির।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য