ভালবাসার মানুষের জন্য প্রেমিক তাজমহল তৈরি করতে পারেন, তা দেখিয়েছেন স¤্রাট শাহজাহান। আর কেশব জয়ার জন্য একটা টয়লেট তৈরি করতে পারবে না! বাস্তব বলবে, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আসল জীবনের কেশবরা তা তৈরি করে উঠতে পারে না। আর তাই সমাজের সে চিত্র বদলাতে চলচ্চিত্রে হাজির অক্ষয় কুমার ও ভূমি পেড়নিকর।

তাদের ‘টয়লেট এক প্রেম কথা’-র ৩ মিনিটের ট্রেলার রিলিজ হয়েছে। অদ্ভুত এক জায়গার প্রেমকাহিনী নিয়ে নির্মিত হচ্ছে নারায়ণ সিংয়ের সিনেমা ‘টয়লেট-এক প্রেমকথা’।

সিনেমায় অক্ষয়কে দেখা যাবে এক পে অ্যান্ড ইউজ টয়লেট মালিকের চরিত্রে। আর ভূমি অভিনয় করছেন বস্তিবাসী এক তরুণীর ভূমিকায়। ওই টয়লেট ব্যবহারের সূত্র ধরে যার প্রেমে পড়েন অক্ষয়। ট্রেলারেই থাকল সেই ইঙ্গিত।

অক্ষয় বলেন, ‘মূলত ভারতের প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি কালচারকে কেন্দ্র করে এই চলচ্চিত্রের কাহিনি আবর্তিত। আর এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে নরেন্দ্র মোদীর ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’-এর বড় ধরনের প্রচারও চালানো হবে। চলচ্চিত্রে প্রথমবারের মতো ভূমি পেডনেকরের সঙ্গে অভিনয় করছি।’

ছবিতেও সামাজিক বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েছেন তিনি। তাই স্বচ্ছ ভারত বা শৌচালয় তৈরির মতো বিষয় বেছে নিয়েছেন। কিন্তু সিনেমা তো সমাজসেবক নন। সমাজ বদল করা তার কাজ নয়।

তবু ছবির একটি চরিত্র হয়ে ট্রেলারেই অনুপম খের বলেন, ইফ ইউ চেঞ্জ নাথিং, নাথিং উইল চেঞ্জ। এই বার্তাটাই যদি একটা লোটা পার্টি বন্ধ করে তাইবা মন্দ কী। ট্রেলার অন্তত ইঙ্গিত দিল, সে ক্ষমতা আছে এ ছবির। বলিউড লাইফ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য