দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে সরকারী জায়গা থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে প্রশাসনের সাথে জনতার সংঘর্ষে পুলিশ কর্মকর্তা সহ ৬ জন আহত হয়েছে। এরমধ্যে ১জন পুলিশ কর্মকর্তা, ৪ জন বন কর্মকর্তা/কর্মচারী ও স্থানীয় ২ জন মহিলা রয়েছে। আহতদের নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

নবাবগঞ্জ থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার ও নবাবগঞ্জ বিটের কর্মকর্তা নিশিকান্ত মালাকার জানান, সোমবার দুপুরে বন বিভাগ তাদের জনবল নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করে পুলিশ সাথে নিয়ে উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের হরিপুর(বুড়ি মন্ডপ) নামক স্থানে বন বিভাগের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে স্থানীয়দের সাথে প্রশাসনের সংঘর্ষ হয়। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে এ সময় বন বিভাগ ৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষন করে।

সংঘর্ষে নবাবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আঃ হাকিম আজাদ, বন কর্মকর্তা গোলাম কাউসার, বন কর্মচারী ফায়িজ উদ্দীন ও মোজাফ্ফর হোসেন, হরিপুর গ্রামের মাসুদের স্ত্রী শিল্পী ও কোরবান আলীর স্ত্রী শিউলী আহত হয়। আহতদের নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। আহত পুলিশ কর্মকর্তা আঃ হাকিম আজাদের বাম হাত ভেঙ্গে গেছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডাঃ সিরাজুল ইসলাম জানান।

তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রমেকে যাওয়ার পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে। অপরদিকে স্থানীয়রা জানান বন বিভাগ যে জায়গায় অভিযান চালাতে এসেছিল সেটা মালিকানাধীন। তাছাড়া বন বিভাগ সেখানে একটি বাড়ী উচ্ছেদ করতে এসেছে কেন। সেখানে তো আরও অনেক বাড়ী আছে? এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি বলে ওসি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য