মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ থেকেঃ বীরগঞ্জে জোর পূর্বক ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেফতার করে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের দামাইক্ষেত্র গ্রামের মঙ্গলু বর্ম্মনের মেয়ে বৃষ্টি রানী রায় ঘটনার দিন রাতে প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে বাড়ী সংলগ্ন ভুট্টাক্ষেতে যায়। ভুট্টাক্ষেতে ওৎপেতে থাকা দেবীপুর গ্রামের ওহাবের ছেলে আরমান ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষন করে পালিয়ে যায়। বৃষ্টি রানী রায় ধর্ষকের পিছু পিছু ধাওয়া করে বুড়িরহাট এলাকায় স্থানীয় লোকজনের কাছে ধর্ষনের কথা প্রকাশ করলে এলাকাবাসী ধর্ষককে আটক করে থানায় সোপর্দ করে।

উল্লেখিত ঘটনায় বৃষ্টি রানী রায়ের বাবা মঙ্গলু বর্ম্মন নিজে বাদী হয়ে ২০০০সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী/০৩) আইনের ৯ (১)/৩০ তৎসহ দন্ড বিধি ৫০৬ ধারায় ধর্ষকসহ ধর্ষনে সহায়তাকারী ৩জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষক আরমানকে দিনাজপুর জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করেছে।

পুলিশ বৃষ্টি রানী রায়কে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  ফরেনসিক বিভাগে প্রেরন করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য