মো: ইউসুফ আলী, আটোয়ারী থেকে : পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে মানব পাচার মামলার আসামীরা প্রকাশ্য ঘুরছে, জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। জানাগেছে, উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের সাতখামার গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে মোঃ রাসেল(২৪) বাদী হয়ে একই এলাকার সাকিব ইসলাম, আজিজুল মন্ডল, নিতাই চন্দ্র বর্মন, রুপালী বেগম, নার্গিস আক্তার, মহিদুল ইসলামকে আসামী করে গত ২মে আদালতে মামলা করেন।

আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ কে মামলাটি রেকর্ড করে ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশ পেয়ে আটোয়ারী থানার ওসি মামলাটি রেকর্ডভুক্ত করেন। যার মামলা নং ০৭, তাং ২৫/৫/১৭ ইং। মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, মামলার বাদী মোঃ রাসেল বলেন, আসামী সাকিব সহ অন্যান্য আসামীরা ওমান দেশে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে পাসপোর্ট ও ভিসা করতে বলে।

সে মোতাবেক আমি পাসপোর্ট নং ০৫৪৩৭৩৩ ও ভিসা করি এবং ২৭ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে আসামীদের হাতে ৪ লক্ষ টাকা প্রদান করি। এরপর ২৮ ফেব্র“য়ারী ২০১৭ তারিখে বিমানের ৬৫২২৩০০৪৫০৯৫২/০১ টিকিটে ওমান দেশের মাসকট বিমান বন্দরে চলে যাই। সেখানে আসামী সাকিবের লেলিয়ে দেয়া কিছু অপরিচিত ব্যক্তি আমাকে জিম্মি করে একলক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। টাকা হাতিয়ে নেয়ার পর আমাকে এক মানব দালালের কাছে বিক্রি করে দেয়।

পরে আমার পিতা-মাতার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে আবারো অর্থ খরচ করে প্রাণ রক্ষা করে দেশে ফিরে এসে আদালতে মামলা করেছি। এব্যাপারে মামলার আইও মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, বাদী-বিবাদী নিজেদের লোক হওয়ায় মামলাটি আপোষের প্রক্রিয়া চলছে। অপরদিকে বাদী মোঃ রাসেল বলেন, মামলা হলেও আসামীরা গ্রেফতার হচ্ছেনা। আপোষের ব্যাপারে কারো সাথে কথা হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য