ইরানের পার্লামেন্ট ভবন এবং আয়াতুল্লাহ খোমেনির মাজারে বন্দুকধারীদের হামলায় অন্তত সাতজন নিহত হয়েছে বলে খবর দিয়েছে রয়টার্স। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, বুধবার সকালে প্রায় একই সময়ে দুই জায়গায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। ইলিয়াস হযরতি নামের একজন এমপি ইরানের রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনকে বলেছেন, অন্তত তিনজন হামলাকারী পার্লামেন্ট ভবনে ঢুকে পড়ে। তাদের মধ্যে একজনের হাতে পিস্তল, আর বাকি দুজনের হাতে একে ফোর্টিসেভেন অ্যাসল্ট রাইফেল ছিল। ইরানের বার্তা সংস্থা আইএসএনএ জানিয়েছে, গুলি শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পার্লামেন্টের সব দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং নিরাপত্তারক্ষীরা অন্তত একজন হামলাকারীকে ঘিরে ফেলেন।

গোলাগুলিতে সেখানে অন্তত সাতজন নিহত হন এবং আরও অনেকে আহত হন বলে বার্তা সংস্থা তাসমিনের তথ্য। তাদের খবরে পার্লামেন্ট ভবনে চারজনকে হামলাকারীরা জিম্মি করেছে বলা হলেও ইরানি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেনি। ঘটনাস্থলে উপস্থিত এক সাংবাদিকের বরাত দিয়ে রয়টার্স লিখেছে, “যখন গুলি শুরু হল, আমি পার্লামেন্টের ভেতরেই ছিলাম। সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। আমি দেখলাম দুইজন লোক নির্বিচারে গুলি করছে।” এর মোটামুটি আধা ঘণ্টা পর আরেক বন্দুকধারী ১৯৭৯ সালে ইরানের ইসলামিক বিপ্লবের নেতৃত্ব দেওয়া আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ খোমেনির মাজারে ঢুকে গুলি শুরু করে। সেখানে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে ইরানের প্রেস টিভি জানিয়েছে।

তেহরানের গভর্নরের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা আইআরআইবি জানিয়েছে, মানুষের ওপর গুলি চালানোর পর মাজারের হামলাকারী সুইসাইড ভেস্টে বিস্ফোরণ ঘটায়। এছাড়া হামলাকারীদের একজন নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছে এবং বাকিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন গভর্নর হোসেইন হাশেমি।  ইরানের গোয়েন্দা দপ্তর বলছে, তেহরানে এই জোড়া হামলা সন্ত্রাসবাদী দলের কাজ বলে তাদের সন্দেহ। তবে হামলাকারীদের পরিচয় এখনও প্রকাশ করা হয়নি বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

ইরানের পার্লামেন্ট ভবন এবং আয়াতুল্লাহ খোমেনির মাজারে হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। জঙ্গি গোষ্ঠীটির বার্তা সংস্থা আমাক বুধবার জানায়, “ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধারা খোমেনির মাজার এবং ইরানের পার্লামেন্ট ভবনে হামলা করেছে।” বুধবার সসকালে ইরানের পার্লামেন্ট ভবন এবং আয়াতুল্লাহ খোমেনির মাজারে বন্দুকধারীদের হামলায় অন্তত সাতজন নিহত হয়। ইরানের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের সন্ত্রাস বিরোধী বিভাগের প্রধান রাষ্ট্রীয় সম্প্রচামাধ্যম আইআরআইবি কে বলেছেন, তারা আরেকটি সন্ত্রাসী হামলা পরিকল্পনা নস্যাৎ করেছেন এবং একদল সন্ত্রাসীকে আটক করেছেন। ইরানের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয় লোকজনকে জনপরিবহনে চলাফেরা না করার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য