দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ধর্ষণ চেষ্টাকালে মোঃ এরশাদ আলী (২৮) নামে লম্পট ভাতিজার লিঙ্গ কেটে দিয়েছে তার আপন চাচী। মোঃ এরশাদ আলী উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের বলদিয়াপাড়া গড়ফতু গ্রামের মোঃ শুকুর আলী ছেলে।

শনিবার রাতে ১২টায় উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের বলদিয়াপাড়া গড়ফতু গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এরশাদ আলীর চাচী  জানান, বেশ কিছুদিন ধরে ভাতিজা এরশাদ আলী বিভিন্ন ভাবে আমাকে উত্যক্ত করে আসছিল। বিষয়টি আমি পরিবারে সকলকে এবং এরশাদের স্ত্রী, মা ও বাবাকে জানাই। কিন্তু কোন প্রতিকার না পেয়ে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদেরকে অবহিত করি। এতে কোন প্রতিকার পাইনি।

শনিবার গভীর রাতে ঘরের দরজা রশি কেটে আমার শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে এবং আমাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় আমি ঘরে রক্ষিত চাকু দিয়ে তার লিঙ্গ কেটে দেই। ঘটনার পর রবিবার সকালে আমি নিজেই গিয়ে শতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. কেএম কুতুব উদ্দিনকে বিষয়টি অবহিত করি।

তবে অভিযুক্ত এরশাদ আলীকে চিকিৎসার জন্য রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতেল নিয়ে যাওয়ায় পরিবারে লোকজন তার সাথে থাকার কারণে এ ব্যাপারে তাদের পরিবারের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. কেএম কুতুব উদ্দিন জানান, দুই সন্তানের জনক লম্পট এরশাদ আলীর লালসার স্বীকার তার আপন চাচার স্ত্রী। চাচা মানসিক ভাবে অসুস্থ্য থাকার সুয়োগে চাচী উপর কু-নজর পড়ে তার। রাতে সে নিজে চাচীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় লালসার স্বীকার দুই সন্তানের জননী মহিলাটি ক্ষিপ্ত হয়ে এঘটনা ঘটিয়েছে।

রবিবার সকালে মহিলা আমাকে নিজেই এসে বিষয়টি অবহিত করে। এর আগে লম্পট এরশাদ আলীর বিরুদ্ধে অনেকবার বিচার শালিস করা হলেও তার সুমতি হয়নি। তার বিরুদ্ধে এলাকায় এ ধরণের অনেক অভিযোগ রয়েছে। আজকের ঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি আমরা লোকমুখে শুনেছি। পুলিশ এ ব্যাপারে খোজ খবর রাখছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য