আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ পুলিশের হেফাজত থেকে থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাকের ধাক্কায় নিহত অপহরণ মামলার আসামি রিপন চন্দ্র দাসের বাড়ীতে এখনও শোকের মাতন চলছে। এলাকায় এখন থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এলাকাবাসী সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ খুজে বের করে দোষী ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার উপজেলার হাতিয়া গ্রামে সুরেশ চন্দ্র দাশের কন্যাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় ওই গ্রামের গ্রামের বাবলু চন্দ্র দাসের ছেলে রিপন চন্দ্র দাস। এনিয়ে অপহরণ মামলা হয় থানায়। গত বৃহস্পতিবার বগুড়ার কাহালু থানা সদর থেকে রিপনসহ অপহৃতাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসার সময় পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ গোপিনাথপুরে প্রস্রাব করার কথা বলে গাড়ী থামিয়ে সুকৌশলে পালানো সময় বগুড়া থেকে আসা ট্রাকের সাথে ধাক্কা লেগে নিহত হয় রিপন।

এ ঘটনায় সুন্দরগঞ্জ থানার এসআই রাজু  আহমেদসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে গাইবান্ধা পুলিশ লাইনে ক্লোজড্ করা হয়। গঠন করা হয়েছে ৩ সদস্য একটি তদন্ত টিম। সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আতিয়ার রহমান জানান, বর্তমানে ওই এলাকার পরিস্থিতি শান্ত। তবে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যাতে অবনতি না হয় সেজন্য রিপনের বাড়িতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য