সন্দেহভাজন অপরাধীদের চিহ্নিত করা ও তাদের অপরাধের প্রমাণ সংগ্রহ করতে মধ্যপ্রাচ্যের শহর দুবাইয়ে যোগ দিয়েছে রোবট পুলিশ।

অপরাধের বিরুদ্ধে মানবযোদ্ধাদের জায়গায় যন্ত্র প্রতিস্থাপনে সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নামানো এ রোবট পুলিশ দুবাইয়ের ব্যস্ততম এলাকায় টহল দেবে বলেও এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স।

এতে দুবাই পুলিশের বরাত দিয়ে বলা হয়, যদি ‘রোবোকপ’ নিরীক্ষা সফল হয় তাহলে ২০৩০ সালের মধ্যে এক চতুর্থাংশ টহল পুলিশ কমিয়ে তার জায়গায় অস্ত্রবিহীন রোবট কাজে লাগাতে চায় তারা।

দুবাই পুলিশের ইউনিফর্মের মতো পোশাকে সজ্জিত মানবাকৃতির রোবটটি হ্যান্ডশেক ও সামরিক কায়দায় স্যালুট করতে পারে।

রোবট পুলিশের এ উদ্যোগকে দুবাইয়ে হতে যাওয়া বিশ্বের অন্যতম বড় বাণিজ্য বিষয়ক প্রদর্শনী ‘এক্সপো-২০২০’ সামনে রেখে প্রযুক্তির মাধ্যমে সেবা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতে সরকারি পরিকল্পনার একটি ভালো দিক বলছে রয়টার্স।

দুবাই পুলিশের স্মার্ট সার্ভিস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার খালিদ নাসের আল রাজোকি বলেন, “এ ধরনের রোবট ২৪/৭ কাজ করতে পারে। তারা আপনাকে ছুটি, অসুস্থতা বা মাতৃত্বকালীন ছুটির কথা বলবে না। এটি দিনে রাতে কাজ করতে পারে।”

চাকার মাধ্যমে চলাফেলা করা মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম স্বয়ংক্রিয় রোবটপুলিশে ক্যামেরা ও ফেসিয়াল রিকনিশন সফটওয়্যার রয়েছে, যা কোনো মানুষের মুখের অবয়বকে পুলিশের তথ্যভাণ্ডারে রাখা বিভিন্ন মুখের মধ্যে তুলনা করতে পারে।

এটি যানবাহনের লাইসেন্স প্লেট পড়তে পারে এবং এর ভিডিও ফিডের মাধ্যমে দুবাইয়ের জনপ্রিয় স্থানগুলোয় সাধারণ পুলিশদের দৃষ্টির আড়ালে থেকে ব্যাগে ঝুঁকির বিষয়টি নজরদারি করতে পুলিশকে সহায়তা করবে।

কোনো মানুষ কোনো অপরাধের বিষয়ে জানাতে এই রোবট পুলিশের সঙ্গে কথা বলতে পারবে বা এটির বুকে জুড়ে দেওয়া টাচস্ক্রিনের ব্যবহার করে যোগাযোগ ঘটাতে পারবে।

রয়টার্স বলছে, দুবাই পুলিশের চাহিদা অনুযায়ী স্পেনের বার্সেলোনাভিত্তিক পাল রোবোটিকসের তৈরি এই রোবট বানাতে কত খরচ হয়েছে সেটি জানায়নি কর্তৃপক্ষ।

রোবটের সঙ্গে কথা বলতে বেশিরভাগ মানুষের দ্বিধা বা অস্তত্বি নেই মন্তব্য করে দুবাই পুলিশের স্মার্ট সার্ভিস বিভাগের মহাপরিচালক খালিদ নাসের আল রাজোকি বলেন, কেউ কেউ এমনকি এটির সঙ্গে কথা বলতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে মনে হয়।

“নতুন প্রজন্মের যারা স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করছেন- তারা এ ধরনের কৌশল ব্যবহার পছন্দ করেন কিনা আমরা এখন সেটি দেখব। তাদের অনেকেই রোবোকপ সিনেমা দেখেছে।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য