দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরে হঠাৎ পাড়া গ্রামের মমিনুল ইসলাম (১১) ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। তার বাবা একজন রিক্সা চালক, তাদের পরিবারে সদস্য সংখ্যা ৫ জন। বাবা পরিবারের ভরণপোষণ করতে হিমসিম খাচ্ছেন, বাবার অর্জিত আয়ে তাদের সংসার চলে না। এজন্য মমিনুল পেটের দায়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। পড়ালেখার প্রবল ইচ্ছা শক্তি থাকা সত্ত্বেও তাকে দৈনিক শ্রমিক ও দিন মজুর হিসেবে কাজে যোগান দিতে হচ্ছে। শিশু শ্রমের সচেতনা মূলক কার্যক্রম আজও সমাজের মানুষকে এর কুফল সর্ম্পকে বাস্তব ধারনা দিতে সক্ষম হয়নি । যার কারনে হাজারও শিশু এখনও বৈরী পরিবেশের মধ্যে সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য