জম্মু-কাশ্মিরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে দুই গেরিলা নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ভারত ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণ চলছে।

আজ (বৃহস্পতিবার) ভোরে সোপরের নাথিপোরার গেরিলাদের উপস্থিতির কথা জানতে পেরে নিরাপত্তা বাহিনী সংশ্লিষ্ট এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় গুলিতে দুই গেরিলা নিহত হয়। একটি সূত্রে প্রকাশ, গেরিলাদের সন্ধানে ২১ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং জম্মু-কাশ্মির পুলিশ যৌথভাবে তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় গেরিলারা নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় পাল্টা গুলিতে নিহত হন ওই দুই গেরিলা।

বাশারাত আহমেদ শেখ এবং এজাজ আহমেদ মীর নামে নিহত গেরিলারা স্থানীয় এবং তারা পুলিশের ওপরে গ্রেনেড হামলায় জড়িত ছিলেন বলে দাবি করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার বারামুল্লা জেলার সোপোরে সন্দেহভাজন অজ্ঞাত গেরিলারা একটি পুলিশ দলের ওপরে গ্রেনেড হামলা চালালে ৪ পুলিশ কর্মী আহত হন। তারা হলেন- নূর মুহাম্মদ, আব্দুল রহমান, বিলাল আহমদ এবং গুলাম হাসান। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদিকে, আজ নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পুঞ্চ এবং রাজৌরি সেক্টরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে ভারত ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি চলেছে। পাক সেনারা নিয়ন্ত্রণরেখার নৌসেরা ও কৃষ্ণাঘাঁটি এলাকাকে টার্গেট করে ভারতীয় সেনাদের উদ্দেশে গুলি এবং মর্টার হামলা চালায়। এসময় ভারতীয় সেনারা পাক সেনাদের উদ্দেশ্যে পাল্টা গুলি চালিয়ে জবাব দিয়েছে।

কাশ্মিরে চলমান অশান্ত পরিস্থিতির মধ্যে সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত শ্রীনগরে গেছেন। তার সঙ্গে সেনাবাহিনীর কমান্ডাররাও রয়েছেন। জেনারেল রাওয়াত সেখানে শুক্রবার পর্যন্ত থাকবেন এবং কাশ্মিরের নিরাপত্তা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সেনাবাহিনীর সিনিয়র কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য