আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ কোমরপুর এলাকার বাসিন্দা আব্দুল জলিলের ছেলে মামুন মিয়া (২৩) ও তার সহযোগি শাহীন মিয়া দুই যুবককে একই এলাকার এক কিশোরীকে ধর্ষণের অপরাধে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। শাহীন মিয়া একই এলাকার নুর হোসেনের ছেলে। গ্রেফতার মামুনের সাহাপাড়া ইউনিয়ন সদর তুলসীঘাট বাজারে একটি স্টুডিও রয়েছে। ওই কিশোরী ছবি তোলা সুত্রে মামুনের পূর্ব পরিচিত।

গত ২৫মে বিকেলে মামুনের অপর সহযোগি জোসনা বেগম সুকৌশলে ওই কিশোরীকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে মামুন মিয়া ওই বাড়িতে গিয়ে জোর করে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটি বাড়িতে গিয়ে বাবা-মার কাছে ঘটনাটি খুলে বলে।

মেয়ের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে অপরাধীদের পরিবারের সাথে একটি আপোষ রফায় সম্মত হন তিনি। তাই গত ২৫ মে এ ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি গোপন রাখার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে ঘটনা প্রকাশ হয়ে পড়লে সদর থানায় অভিযোগ করা হয়।

ফলে সোমবার বিকেলে মামুন ও জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযুক্ত জোসনা বেগমকে গ্রেফতার করা যায়নি। এব্যাপারে সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। কিশোরীটি তুলসীঘাট রেবেকা হাবীব গালস্ স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। ঘটনার পর থেকে সে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য