ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বাড়ী ফিরা হল না  প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী মাইষা আক্তারের, সে মায়ের হাত ধরে খালার বাড়ী থেকে বাড়ী ফিরার পথে ঘাতক ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে পথি মধ্যে তার মৃত্যু হয়েছে।

এই নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌরশহরের সরকারী কলেজ মোড়ে। থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষ দর্শিরা জানায়, মাইষা আক্তার মায়ের হাত ধরে দিনাজপুর-গবিন্দগঞ্জ-ঢাকা মহাসড়ক পারাপর করার সময় বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা (ঢাকা মেট্র-ট-১৮-০৩২৬) একটি ট্রাক সজরে মাইষা আক্তারকে চাপা দেন, এতে ঘটনা স্থলে তার মৃত্যু হয়। তবে অক্ষত থাকে তার মা পিয়ারা বেগম।

নিহত মাইষা আক্তার উপজেলার বেতদিঘী গ্রামের আলম চৌধুরীর  মেয়ে ও বেতদিঘী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী। মাইষা আক্তারের পরিবারের সদস্যরা  বলেন, গত দু’দিন আগে মাইষা আক্তার তার মা পিয়ারা বেগমের সাথে তার খালার বাড়ী নবাবগঞ্জ উপজেলার আফতাবগঞ্জ বাজারে বেড়াতে যায়, সেখান থেকে  বাড়ী ফিরার সময় পথি মধ্যে এই দুর্ঘটনার শিকার হয়।

মাইষা আক্তার, আলম চৌধুরী ও পিয়ারা বেগম দম্পতির দুই সন্তারের মধ্যে প্রথম, তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে সেই একমাত্র মেয়ে ছিল।
মাইষা আক্তরের নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে আসে সারা উপজেলায়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা, মাইষা আক্তারের নিথর ছোট দেহটি দেখে কেই  চোখের পানি ধরে রাখতে পারেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য