ভারতের বিজেপিশাসিত উত্তর প্রদেশে তারাবিহ নামাজ পড়ে ফেরার পথে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের হামলায় একজন নিহত ও অন্য দু জন আহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির নাম পাপ্পু মিস্ত্রি। এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকায় তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

উত্তর প্রদেশের গোণ্ডার সাহেবগঞ্জ এলাকায় গতকাল (রোববার) রাতে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালালে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

একটি সূত্রে প্রকাশ, পাপ্পু মিস্ত্রি, আরমান ও অন্য এক ব্যক্তি মসজিদ থেকে তারাবিহ নামাজ পড়ে ফিরছিলেন। এসময় সাহেবগঞ্জ ঘোসিয়ানা এলাকায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাদের উপর তলোয়ার নিয়ে হামলা চালালে তারা ঘাড়ে গুরুতর আঘাত পান। পাপ্পু মিস্ত্রিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তিনি সেখানে মারা যান। অন্য দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ওই ঘটনার পরে হাসপাতাল এবং ঘোসিয়ানায় মানুষজন সড়কে নেমে আসেন। পুলিশের এসপি উমেশ কুমার সিং এবং সিও জেলা হাসপাতালে পৌঁছে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ গোণ্ডা সফরের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ওই হামলার ঘটনা ঘটায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুসারে বলরামপুর এবং গোণ্ডা সফর করে অন্য বিষয়ের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা পরস্থিতিও পর্যালোচনা করেন।

সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের অমরোহার সাকতপুরে মুসলিমদের মসজিদে নামাজ পড়তে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এবার মসজিদ থেকে তারাবিহ নামাজ পড়ে ফেরার পথে মুসলিমদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা প্রকাশ্যে এল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য