দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বিরলে তিন দিনের ব্যবধানে চন্দন কুমার রায় (১৭) এবং ছায়া রানী দেবশর্মা (১৬) নামে আরও এক প্রেমিক যুগলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

চন্দন কুমার রায় উপজেলার শহরগ্রাম এলাকার অতিন চন্দ্র রায়ের ছেলে এবং ছায়া রানী দেবশর্মা পাশ্ববর্তী বাদারী গ্রামের নীল কান্ত দেবশর্মার মেয়ে।

রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলার শীষ গ্রাম এলাকার একটি কদম গাছ থেকে তাদের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার বিকেল থেকে দুজনেই বাড়ী থেকে বের হয়ে রাতে আর বাসায় ফিরেনি। রবিবার সকালে পাশ্ববর্তী শীষগ্রাম এলাকার একটি কদম গাছে একসাথে তাদের ঝুলন্ত লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয় এলাকার লোকজন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুপুরে তাদের লাশ উদ্ধার করে। তারা দুজনেই এবার বিরল উপজেলার মোহনা মঙ্গলপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলো। এর মধ্যে চন্দন কুমার রায় পাশ করলেও ছায়া রানী দেবশর্র্মা পাশ করতে পারেনি বলে পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে।

বিরল থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মজিদ জানান, সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে পুলিশ। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে প্রেমঘটিত কারনেই তারা দুজনে একসাথে আত্মহত্যা করেছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বিরল উপজেলার সাকোইর গ্রামে একটি আমগাছ থেকে অপর এক প্রেমিক যুগল ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য