আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ বিদেশে লোক পাঠানোর কথা বলে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার যুবকদের নিকট হতে লক্ষ-লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তা সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনজল গ্রামের মোজাহার আলীর ছেলে আতাউর রহমান আতোয়ার। তার বিরুদ্ধে কোর্টে এবং থানায় মামলা হয়েছে। ওয়ারেন্টও হয়েছে একাধিকবার। কিন্তু পুলিশ তাকে আজ গ্রেফতার করতে পারেনি।

উপজেলার শান্তিরাম ইউনিয়নের ভুক্তভোগি আব্দুল ছাত্তার মিয়া জানান-আমাকে এবং আমার ভাইকে মালশিয়া পাঠানোর কথা বলে ১০ লক্ষ টাকা নিয়েছে আজ হতে ৫ বছর আগে। টাকা নিয়ে পার্সপোট ভিসা নিয়ে আসার কথা বলে ঢাকায় চলে যায় আতোয়ার। দীর্ঘদিন মোবাইল-ফোনে যোগাযোগ হলে বর্তমানে তার ফোন বন্ধ রয়েছে। শুধু আমাদের নিকট থেকে নয়।

উপজেলা বিভিন্ন এলাকা থেকে কমপক্ষে ১০ হতে ১৫ জনকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নেয় আতোয়ার। ছাত্তার আরও জানান-যোগাযোগের একপর্যায় আতোয়ার আমাকে টাকা ফেরৎ দেয়ার জন্য ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ সুন্দরগঞ্জ শাখার একটি ভূয়া হিসাব নম্বর বসিয়ে ২টি চেকের পাতা সহি করে দেয়। অথচ ব্যাংকে গিয়ে দেখা যায় ওই হিসাব নম্বরে কোন টাকা নেই।

এ নিয়ে আমি আদালতে চেক জালিয়াতির মামলা করেছি। তার বিরুদ্ধে একাধিক বার ওয়ারেন্ট হয়েছে। কিন্তু আজ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি। অপরদিকে শান্তিরাম ইউনিয়নের মিঠু মিয়া জানান-আমাকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে আমার নিকট থেকে ৪ লাখ টাকা নিয়েছে। এদিকে ভুক্তভোগি পরিবারগুলো জমি-জিরাত বিক্রি করে আদমব্যাপারীকে টাকা দিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। স্ত্রী পুত্র পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

আতোয়ারের মোবাইল-ফোন বন্ধ থাকায় তার পরিবারের সাথে এনিয়ে কথা বললে-তার ভাই জানান- আতোয়ার আমাদের কেউ না। আমরা তাকে চিনি না। থানার ওসি আতিয়ার রহমান জানান-আতোয়ারকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তার মোবাইল ফোন বন্ধ থাকা কারণে দ্রুত গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য