নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ নারায়নগঞ্জের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তি এবং দোষি ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখা মানবববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে।

শনিবার (২৭ মে ) দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন চলাকালে  বক্তারা বলেন, প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তিকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসিয়েছেন জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম ওসমান। তিনি একজন শিক্ষকের সাথে যে উদ্ধর্তপূর্ণ আচরণ করেছেন তার জন্য তাকে অবশ্যই বিচারের আওতায় আনতে হবে। একজন শিক্ষককে হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পাঠানো লজ্জার ব্যাপার। যারা তার বিরুদ্ধে এই মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে জাতির কোন সংকটের সময় তাদের কখনই পাওয়া যায়নি।

শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ফজলুর রহমান’র সভাপতিত্বে  মানবববন্ধনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. মাতলুবুল মামুন, সহ-সভাপতি বুনু বিশ্বাস, সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, সাধারণ সম্পাদক মাসউদ আলম, বাশিস দিনাজপুর জেলা শাখার আহবায়ক মো. সামিনুর ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লোকমান হাকিম, মাকিহারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একেএম ফজলুল হক, স্বারদেশ্বরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কুমার, ক্রিসেন্ট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

এদিকে প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার এবং অবিলম্বে মুক্তির দাবীতে বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস) দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত মানবববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। মানববন্ধনে শ্যামল কান্তি ভক্তের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে অবিলম্বে তাকে মুক্তির দাবী জানান।

বাকবিশিস জেলা শাখার আহবায়ক বদিউজ্জামান বাদল’র সভাপতিত্বে মানবববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সদস্য খন্দকার আশরাফুজ্জামান, পাঁচবাড়ী কলেজের শিক্ষক লাইফুর চৌধুরী, শংকরপুর কলেজের শিক্ষক মিনারুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য