যুক্তরাজ্যে ম্যানচেস্টার হামলাকে কেন্দ্র করে সাময়িক বন্ধ রাখার পর আবারও শুরু হচ্ছে নির্বাচনি প্রচারণা। হামলার প্রতিক্রিয়ায় ব্রিটেনে আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের প্রচারণা স্থগিত হয়ে যায়। তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় ওঠে সারাবিশ্বে। গতকাল বৃহস্পতিবার ম্যানচেস্টার হামলায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন শেষে প্রচারণায় নেমে পড়বে রাজনৈতিক দলগুলো। তবে আপাতত স্থানীয় পর্যায়ে প্রচারণা চালানোর কথা জানিয়েছে তারা। এদিকে ম্যানচেস্টারের হামলায় এখন পর্যন্ত আট সন্দেহভাজনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে পুলিশ। গত সোমবার রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী আরিয়ানা গ্র্যান্ডের কনসার্টে চালানো ওই হামলায় ২২ জন নিহত আর ৬৪ জন আহত হয়। প্রাথমিকভাবে নিরাপত্তা সূত্র দাবি করে, এটা এক ব্যক্তির সংঘটিত (লোন উলফ) হামলা। তবে গত মঙ্গলবার সেই অবস্থান থেকে সরে তারা হামলায় একাধিক মানুষের জড়িত থাকার সন্দেহের কথা জানায়।

আগামী ৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাজ্যের জাতীয় নির্বাচন। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে প্রচারণা চললেও ২২ মে ম্যানচেস্টার হামলাকে কেন্দ্র করে স্থগিত হয়ে যায় তা। গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে স্থানীয় পর্যায়ে প্রচারণা শুরুর কথা জানিয়েছে কনজারভেটিভ পার্টি, লেবার পার্টি, লিবারেল ডেমোক্র্যাট পার্টি, গ্রিন পার্টি, স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টিসহ-সব দলগুলো। কনজারভেটিভ পার্টির এক মুখপাত্র বলেন, ‘ গতকাল দুপুর থেকে কনজারভেটিভ পার্টি নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করবে। ম্যানচেস্টারের হামলায় যারা প্রাণ হারিয়েছেন কিংবা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের জন্য এক মিনিটের নীরবতা পালনের পর এ প্রচারণা শুরু হবে।’

বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিনও জানিয়েছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার আবারও প্রচারণা শুরুর কথা। তিনি বলেন: ‘ব্রিটিশ জনগণ ঐক্যবদ্ধভাবে বিশ্বাস করে যে সন্ত্রাসবাদ জয়ী হতে পারবে না। আমাদের দৈনন্দিন জীবন এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে বিচ্যুত করা থেকে এটি আমাদের বিরত রাখে।’ তিনি আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা আমাদের গণতন্ত্র ও একতাকে আগাত করতে চেয়েছিল। আবারও গণতান্ত্রিক বিতর্ক ও প্রচারণা শুরু করাটা গণতন্ত্রের সুরক্ষায় দেশের সংকল্পেরই প্রতিচ্ছবি।’ ইউকেআইপি নেতা পল নুটাল বলেন, ‘আমাদের জীবন-যাপন পদ্ধতি, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রকে এসব মানুষ ঘৃণা করে। এর বিরুদ্ধে উপযুক্ত জবাব হলো, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করা। আর সেকারণে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, গতকাল বৃহস্পতিবার আমরা নির্বাচনি ইশতেহার প্রকাশ করব ও সামনে এগিয়ে যাব।’

এদিকে ম্যানচেস্টার হামলার ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার নতুন করে আরও দুই সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেটার ম্যানচেস্টার পুলিশ জানিয়েছে, এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ৮ সন্দেহভাজনকে নিরাপত্তা হেফাজতে রাখা হয়েছে। গত বুধবার রাতে এক নারীকে গ্রেফতার করা হলেও কয়েক ঘণ্টা পর কোনও অভিযোগ গঠন ছাড়াই তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য