ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পার্শবর্তী নবাবগঞ্জ উপজেলার দেবীপুর গ্রাম থেকে সাবিনা বেগম (২৩) নামে এক গৃহবধুর গলায় ফাঁশ দেয়া ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনার পর থেকে পলাতক আছে ওই গৃহবধুর স্বামী ও শশুর। গত সোমবার রাত সাড়ে দশটায় ওই গৃহবধুর সোয়ার ঘর থেকে ঝুলন্ত মৃত দেহটি উদ্ধার করেন আফতাব গঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

নিহত গৃহবধু দেবীপুর গ্রামের রেজওয়ান মিয়ার স্ত্রী, ও ফুলবাড়ী উপজেলার দক্ষিন বাসুদেবপুর (ডাঙ্গা) গ্রামের সাইফুল ইসলাম ফুলোর মেয়ে। মুত সাবিনার পিতা সাইফুল ইসলাম ফুলো বলছেন সাবিনার স্বামী ও শশুর বাড়ীর লোকেরা তার মেয়েকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। এই ঘটনার পর থেকে নিহত গৃহবধুর স্বামী ও শশুর  সকলে পলাতক আছে।

মৃত সাবিনার পিতা সাইফুল ইসলাম ফুলো বলেন গত পাঁচ বছর পূর্বে নবাবগঞ্জ উপজেলার দেবীপুর গ্রামের ইসব উদ্দিনের ছেলে রেজওয়ান মিয়ার সাথে তার মেয়ে সাবিনার বিয়ে হয। বিয়ের পর থেকে তার মেয়ে সাবিনাকে যৌতুকের দাবীতে তার স্বামী রেজওয়ান ও তার শশুর বাড়ীর লোকজন নির্যাতন করে আসছিল। এই ঘটনায় তিনি নবাবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দাযেরের জন্য অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আফতাবগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই নুরুজ্জামান বলেন সাবিনার পিতা সাইফুর ইসলামের অভিযোগের ভিত্তিতে দেবীপুর গ্রাম থেকে সাবিনার মৃতদেহ উদ্ধার করে, ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য